নজরুলের রচনায় চিরকালীনতা খুঁজে পাই : আনিসুজ্জামান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ মে ২০১৯, ১৩:৩৯

বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেছেন, প্রত্যেক বড় সাহিত্যিকের রচনার মধ্যে চিরন্তনতা এবং সমকালীনতাÑএই দুই বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান থাকে। কাজী নজরুল ইসলামের রচনায়ও আমরা প্রবল সমসাময়িকতা এবং চিরকালীনতা খুঁজে পাই।

তিনি বলেন, নজরুলের কালজয়ী রচনায় যেসব মানবিক সমস্যার কথা উঠে এসেছে সে সবের অনেক কিছু এখনো বিরাজমান থাকায় নজরুলের প্রাসঙ্গিকতা আরও বিশেষভাবে অনুভূত হয়। বাংলা সাহিত্য,সংস্কৃতিতে নজরুলের এই প্রাসঙ্গিকতা চিরকাল থাকবে।

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২০-তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলা একাডেমি আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির ভাষনে এ বক্তব্য রাখেন।

একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে রবিবার অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত ভাষণ দেন একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী। ‘নজরুলের প্রাসঙ্গিকতা ’ শীর্ষক একক বক্তৃতা প্রদান করেন অধ্যাপক সৌমিত্র শেখর।

অনুষ্ঠানের শুরুতে নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ কবিতা আবৃত্তি করেন ডালিয়া আহমেদ এবং নজরুলগীতি পরিবেশন করেন শিল্পী ইয়াসমিন মুশতারী।

স্বাগত ভাষণে হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, বাংলা একাডেমির সঙ্গে নজরুল জড়িয়ে আছেন নিবিড় একাত্মতায়। আমরা শীঘ্রই নজরুল স্মৃতিবিজড়িত ঐতিহাসিক বর্ধমান হাউসের দোতলায় দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা নজরুল স্মৃতিকক্ষ পুনরায় চালু করতে যাচ্ছি। এছাড়া একাডেমি কর্তৃক বিশিষ্ট গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ প্রণীত নজরুলের কয়েক খ-ের প্রামাণ্য জীবনী প্রকাশিত হবে।

অধ্যাপক সৌমিত্র শেখর বলেন, নজরুলের প্রাসঙ্গিকতা কখনো ফুরোবার নয়। কাল যতই অতিক্রান্ত হচ্ছে তাঁর কালোত্তর প্রাসঙ্গিকতা ততই নিবিড় করে অনুভূত হচ্ছে। নজরুলকে কেবল ‘বিদ্রোহী’ কবিতা-নির্ভর একজন কবি হিসেবে ব্যাখ্যা করার প্রবণতা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ তাঁর সামগ্রিকতা আরও বিচিত্র, ব্যাপক ও বর্ণাঢ্য। তিনি শাস্ত্রের ঊর্ধ্বে ওঠে মানবসুন্দরের গান গেয়েছেন।

তিনি বলেন, আজকের সাম্প্রদায়িক চিন্তায় কলুষিত বিশ্বে চিরপ্রাসঙ্গিক, অসাম্প্রদায়িক নজরুলের অগ্রন্থিত লেখা দ্রুত উদ্ধার করে তাঁর রচনাবলি পূর্ণাঙ্গ করার যেমন জরুরি তার চেয়ে বেশি জরুরি নজরুল-চিন্তার আলোকে আমাদের সমাজ-রাষ্ট্র ও বিশ্বের মানবিক রূপান্তর সম্পন্ন করা।
খবর বাসস

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ