চাল আমদানির অনুমতি দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৯:১০

দেশের বাজারে চালের দাম স্থিতিশীল রাখতে বিদেশ থেকে চাল আমদানির অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বৃহস্পতিবার খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সুমন মেহেদির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনীয় পরিমাণ চাল আমদানির অনুমতি দিয়েছেন।

এর আগে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার একাধিকবার ব্যবসায়ী ও চালকল মালিকদের হুঁশিয়ারি করে দিয়ে বলেছেন, কারসাজি করে চালের দাম বাড়ানো হলে সরকার বসে থাকবে না। প্রয়োজনে বিদেশ থেকে আমদানি করে চালের বাজার স্থিতিশীল রাখা হবে।

এক সভায় খাদ্যমন্ত্রী বলেন, চালের বাজার স্থিতিশীল রাখার স্বার্থে প্রয়োজনে সুবিধামতো শুল্ক কমিয়ে বিদেশ থেকে চাল আমদানি করা হবে। এবার বোরো মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। তাই এই মৌসুমে চালের বাজার অস্থিতিশীল হওয়ার কোনো কারণ নেই। যদি কেউ অপচেষ্টার মাধ্যমে চালের মূল্য বৃদ্ধি করার চেষ্টা করে তাহলে কঠোর অবস্থানে যাবে সরকার। প্রয়োজনে সরকারিভাবে চাল আমদানি করা হবে। 

চালকল মালিকদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, চালের বাজার স্থিতিশীল রাখুন, সরকারের সঙ্গে করা চুক্তি অনুযায়ী সরকারি গুদামে চাল সরবরাহ করুন। যদি তা না করেন, তাহলে সরকার চাল আমদানি করতে বাধ্য হবে। 

মন্ত্রী বলেন, দেশে চাল আমদানি হলে মিলারদের লোকসান হবে এবং যেসব কৃষক ধান ধরে রেখেছে তারাও লোকসানে পড়বে।

চলতি বছর সাড়ে ১৯ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান-চাল কেনার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করে সরকার। সে অনুযায়ী ৩৬ টাকা কেজি দরে মিলারদের কাছ থেকে ১০ লাখ মেট্রিকটন সিদ্ধ চাল, ৩৫ টাকা কেজিতে দেড় লাখ মেট্রিক টন আতপ চাল এবং সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ২৬ টাকা কেজিতে আট লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান কেনার কথা ছিল।

কোভিড-১৯ সংক্রমণ পরিস্থিতিতে কিছু মিল মালিক ৩৬ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহ করতে গরিমসি করে সরকারের কাছে চালের দাম বাড়ানোর দাবি তোলেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ