বালিয়াডাঙ্গীতে ইউপি’তে আ.লীগের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ অক্টোবর ২০২১, ২০:১০

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড় পলাশবাড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত শাহাবুদ্দিন মিয়াকে রাজাকার পরিবারের সন্তান দাবি করে  মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে এলাকাবাসী ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা।

আজ সোমবার সকাল ১১ টায় জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চৌরাস্তা মোড়ে ঘন্টা ব্যাপি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় সাধারণ ভোটার স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা,শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অংশ নেয়।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ৪নং বড় পলাশবাড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে যিনি মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি রাজাকার পরিবারের  সন্তান। ।তার বাবা আব্দুল হালিম ১৯৭১ সালে পিস কমিটির  সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। যুদ্ধাপরাধের অপরাধে তার পিতা আব্দুল হালিমের বিরুদ্ধে ১৯৭৫ সালে  আন্তর্জাতিক ট্র্ইাবুনালে মামলা হয়েছিল যার নাম্বার পি-২৬/৭৫ এবং ট্রাইব্যুনাল কেস নং ১৪৫/৭৪।

তার ভাই শফিকুল আলম বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকায় তিনি বিএনপি নামে পরিচিত।তিনি দীর্ঘদিন যাবত বড় পলাশবাড়ি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।তিনি উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি এবং জেলা বিএনপির সদস্য।এছাড়াও ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে তিনি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেন।

কাজেই তার মনোনয়ন বাতিল করে বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলামকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

এ ব্যাপারে মনোনয়নপ্রাপ্ত শাহাবুদ্দিন মিয়া জানান,আমি দীর্ঘ ৩২ বছর ধরে বড় পলাশবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে নিষ্টার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে আসছি।সে কারণে দল আমাকে কর্মকান্ডে সন্তুুষ্ট হয়ে মনোনয়ন দিয়েছে। সেজন্য আমি দলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

এ ব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.আবু হাসনাত বাবু তথ্য গোপন করার প্রশ্নে জানান,এসব অভিযোগের কোন ভিত্তি নাই। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা আওয়ামীলীগ মনোনয়ন পত্র জমা নিয়ে সকলের মনোনয়নপত্রগুলো কেন্দ্রের নির্দেশনানুযায়ী জেলায় পাঠানো হয়। জেলা যাচাই বাছাই করে তিন জনের নাম কেন্দ্রে পাঠান।জেলা নিয়মানুযায়ী মন্তব্যের ঘরে মন্তব্য লিখে পাঠান।

তিনি আরো জানান, মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যেভাবে জীবন বৃত্তান্ত উপস্থাপন করেছেন সেভাবেই কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে একই দিনে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলামের ছোট ভাই অধ্যক্ষ সাদেকুল ইসলাম।  

 সংবাদ সম্মেলনে তার পিতাকে ভাষা সৈনিক এবং আওয়ামীলীগের দুর্দিনের কান্ডারী দাবি করে তার ভাই আমিনুল ইসলামকে মনোনয়ন প্রদানের দাবি জানান। এবং বর্তমানে আওয়ামী দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্ত সাবেক চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দীন মিয়ার মনোনয়নের বাতিলের জন্য বিস্তর যুক্তি উপস্থাপন করেন।

বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী শাহাবুদ্দীন জানান, ৫০ বছর ধরে আওয়মীলীগের রাজনীতি করছি। ৩২ ধরে বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্বো পালন করছি। আমার বাবা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা কমিটির সদস্য ছিলেন।  তাদের অভিযোগ ভিত্তিহীন।


এবিএন/রমজান আলি/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm