আজকের শিরোনাম :

সুন্দরগঞ্জে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূর ঘর তালাবদ্ধ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:১৪

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধূর ঘরে তালা ঝুঁলিয়েছে তিন নারী লিপ্সু। এতে অসহায় ওই গৃহবধূ নিরূপায় হয়ে স্বামী ও সন্তানকে নিয়ে গাছতলায় বসে রাত্রী যাপন করছেন।

জানা যায়, উপজেলার কঞ্চিবাড়ী ইউনিয়নের সতিরজান গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে জিয়ারুল হক কর্মের তাগিদে স্ত্রী সন্তানকে বাড়িতে রেখে দীর্ঘদিন থেকে ঢাকায় অবস্থান করছে। এই সুযোগে তার আপন বড়ভাই জয়নাল মিয়া ও পরিবারের লোকজন বিভিন্ন সময়ে কারণে-অকারণে তার স্ত্রী মাজেদা বেগমকে শারীরিক ও মানুষিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। এরই একপর্যায়ে জয়নাল মিয়া ওই গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়। কুপ্রস্তাবে রাজি না হয়ে ওই গৃহবধূ প্রতিবাদ করলে তার স্ত্রী, সন্তান ও মেয়ে জামাই মিলে আবারো তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। পরে ওই গৃহবধূ তার স্বামীর পরামর্শে সাবেক ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম ও মিলন দেওয়ানের কাছে বিচার প্রার্থনা করেন।

এদিকে সুষ্ঠু বিচার পাইয়ে দেয়ার কথা বলে সাবেক ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম ও মিলন দেওয়ান ওই নির্যাতিতা গৃহবধূকে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। এতে গৃহবধূ উপায় না পেয়ে নিজে প্রতিবাদ করায় নারী লোভী ওই ৩ জন একত্রিত হয়ে গৃহবধূকে মারপিট করে ঘরে তালা ঝুঁলিয়ে বাড়ি হতে জোর বের করে দেন।

বিষয়টি জানতে পেরে গৃহবধূর স্বামী জিয়ারুল হক ঢাকা হতে বাড়িতে পৌঁছে এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে কু-প্রস্তাবকারীরা তাকেও মারপিট করেন। বর্তমানে ওই গৃহবধূ স্বামী, সন্তানসহ কখনো গাছতলায় আবার কখনও অন্যের বাড়িতে রাত্রি যাপন করছেন।
এঘটনায় ওই নির্যাতিতা গৃহবধূ বাদী হয়ে গত ২৪ অক্টোবর নারী লোভীদের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি এজাহার দাখিল করেন।
থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহিল জামান বলেন, ‘গৃহবধূ থানায় একটি এজাহার দাখিল করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’
 

এবিএন/ শাহ মো. রেদওয়ানুর রহমান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm