ধুনটে ময়লা-আবর্জনা অপসারণের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯, ১৬:০৯

বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার বর্জ্য নিষ্কাশনে অব্যবস্থাপনার ফলে যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনায় পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়ছে। পৌর শহরের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, হোটেল ও বাসাবাড়ির নিত্যদিনের ময়লা-আবর্জনা যেখানে-সেখানে ফেলায় শহরের পরিবেশ নোংরা হচ্ছে। এ সব বর্জ্য অপসারণের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে পৌরবাসী। তাই এসব বর্জ্য অপসারণের দাবিতে বুধবার ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাকর্মীরা ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, ধুনট পৌরসভায় নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলার ডাম্পিং গ্রাউন্ড (ময়লা ফেলার ভাগাড়) না থাকায় এবং জনবল কাঠামোসহ নানা সংকটে শহর পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। শহরের প্রতিদিনের ময়লা অপসারণের কার্যকর কোনো ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় দুর্গন্ধে বাতাস দূষিত হয়ে পড়ছে। চলতি বর্ষা মৌসুমে টানা বর্ষণে জমে থাকা ময়লা যত্রতত্র ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দুর্গন্ধে বাজারের পথচারী, শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। পৌর এলাকার সাধারণ মানুষের দাবি, যত্রতত্র ময়লা ফেলার কারণে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ধুনট পৌর এলাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশের পুকুরপাড়ে, পোষ্ট অফিসের পিছনের একটি গর্তে ও ধুনট বাইপাস সড়ক সহ বিভিন্ন স্থানে যত্রতত্রভাবে ময়লার স্তূপ করে রাখছেন পরিচ্ছন্নকর্মীরা। বৃষ্টির পানিতে এ সব ময়লা আবর্জনা আশপাশে ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে মশা-মাছি সৃষ্টি হচ্ছে। শহরের মাছ বাজারে পাশেই ব্যবসায়ীরা ময়লার ভাগাড় করার কারণে পরিবেশ নোংরা হয়ে গেছে। দুর্গন্ধের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না কেউই। এ সব ময়লা-আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে না ফেলার কারণে গন্ধ আরও তীব্রভাবে ছড়িয়ে পড়ছে শহরজুড়ে।

ধুনট বাজারে ব্যবসায়ী নরেশ চন্দ্র বলেন, ময়লা-আবর্জনার দুর্গন্ধের কারণে শহরের মানুষ এখন অতিষ্ঠ। হোটেল ও রেস্তোরাঁগুলোতে চা, নাশতা খাওয়ার পরিবেশ নেই। রাস্তা-ঘাটে যত্রতত্র ময়লা ও আবর্জনা ফেলায় পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। তাই পৌর শহর থেকে দূরে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা-আবর্জনা মজুদ ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা জরুরি।

ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ্ স্বপন বলেন, পৌর এলাকার বাসা-বাড়ির ময়লা-আবর্জনা নিষ্কাশনে অব্যবস্থাপনার ফলে যত্রতত্রভাবে যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা ফেলে হচ্ছে। ধুনট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বর সহ পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন স্থানে ময়লা আবর্জনা ফেলায় পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়ছে এবং শহরের পরিবেশ নোংরা হচ্ছে। এ সব বর্জ্য অপসারণের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে পৌরবাসী। এছাড়া শহীদ মিনার চত্তরে মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড ও হাট বসায় শহীদ মিনারের মার্যাদা ক্ষুন্ন হচ্ছে। তাই এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

ধুনট পৌরসভার মেয়র এজিএম বাদশাহ্ বলেন, আগে পৌরসভার ময়লা আবর্জনা ফেলার কোন নির্দিষ্ট জায়গা ছিল না। একারনে কিছুদিন আগে একটি জয়গা কেনা হয়েছে। তাই দ্রুত শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা বলেন, পৌর শহর ও শহীদ মিনার চত্বর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।


এবিএন/ইমরান হোসেন ইমন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ