বালিয়াডাঙ্গীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৯, ১৪:০৫

হিন্দুধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম হয়ে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে একাধিকবার অবৈধভাবে শারীরিক মেলামেশা করে মোহিন চন্দ্র সিংহ নামের এক যুবক। দীর্ঘদিন শারীরিক মেলামেশার কারণে পঞ্চম শ্রেণীর ওই ছাত্রী এখন ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

ঘটনাটি ঘটেছে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ধুকুরঝাড়ী টাকাহাড়া গ্রামে। ধর্মের কারণে প্রথমে বিষয়টি ছাত্রীর পরিবারের লোকজন গোপন করলেও এখন বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। 

এ ঘটনায় বালিয়াডাঙ্গী থানায় ওই যুবকসহ তার ভাই বিদ্যানাথ সিংহ, তাদের বাবা প্রফুল্ল চন্দ্র সিংহ এবং তার মা মিলন বালাকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন ছাত্রীর বাবা।

এর আগে হিন্দুধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম হয়ে বিয়ে করার আশ্বাস দেখিয়ে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে মোহিন চন্দ্র সিংহ। গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর স্কুলছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। এরপর বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন সময়ে শারীরিক মেলামেশা করে। এতে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে মেয়েটি। বিষয়টি জানাজানি হলে তা মীমাংসার জন্য চাপ দেন স্থানীয় প্রভাবশালী মোহল। 

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোসাব্বেরুল হক জানান স্কুলছাত্রীর বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে ছাত্রীটিকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। ২৪ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বার প্রমাণ ও ডাক্তারি সার্টিফিকেট পাওয়ার পর মামলা রুজু করা হয়েছে। 

বাকি আসামিদের ধরার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে ওসি আরও জানান আজ বৃহস্পতিবার (৭ আগষ্ট) দুপুরে গ্রেফতারকৃত আসামি ছেলের বাবা প্রফুল্ল চন্দ্র সিংহকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

স্কুলছাত্রীর বাবা জানান মামলা করার ফলে স্থানীয় মোড়লসহ হিন্দু পরিবারের লোকজন প্রতিনিয়ত তার পরিবারকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। মেয়ের এমন পরিণতির জন্য আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি।

এবিএন/মো. রমজান আলী/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ