সিরাজগঞ্জে বিদ্যুৎ খুঁটি ব্যাবহার করে ইন্টারনেট সংযোগ : দুর্ঘটনার আশংকা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৪৮

সিরাজগঞ্জে বিদ্যুৎ খুঁটি ব্যবহার করে যত্রতত্র ইন্টারনেট সংযোগ লাইন স্থাপন করা হয়েছে। অবৈধভাবে এ সংযোগ লাইন ব্যবহার করায় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট প্রশাসন এ বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে প্রকাশ, দীর্ঘদিন ধরে ইন্টারনেট কোম্পানীগুলো শহরাঞ্চলের বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ তারের সাথে ইন্টারনেট ক্যাবল বেঁধে ঝুলিয়ে রাখা, ম্যাসেঞ্জার ক্যাবলে ষ্টিল জিআই তার ব্যবহার এবং লুজ কানেকশনের কারণে বাতাসেই উভয় তাঁরের স্পর্শে প্রায়ই শর্ট সার্কিটের ঘটনা ঘটে। সেইসাথে বিদ্যুৎ খুঁটির সংযোগস্থলে পাখির বাসা তৈরি করায় তাতে পানি জমেও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে থাকে।

ঈদুল আযহার রাতে শহরের মুজিব সড়ক এলাকায় জ্ঞানদায়িনী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনের বিদ্যুৎ খুঁটিতে ইন্টারনেট ক্যাবল থেকে শর্টসার্কিট হয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে মেরামতের পর বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হলে ঘটনাস্থলের ৫০গজ দূরে আবারো একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। এর আগে ৪জুলাই গভীর রাতে একই এলাকায় অগ্নিকাণ্ডেরঘটনা ঘটে।

এসব অগ্নিকাণ্ডের কারণে অনেকস্থানে বিদ্যুৎ তারগুলো পুড়ে কোনমতে ঝুলে আছে। এ কারণে শহরবাসীর মধ্যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। ঈদুল আযহার রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর ইন্টারনেট কোম্পানীগুলো মেরামত কাজ সেরে অকেজো তাঁরগুলো যত্রতত্রভাবে রাস্তায় ফেলে রেখে যায়। এতে প্রায়ই রিকশা, সাইকেল, মোটর সাইকেল, সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা চলাচলের সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়।

 বিটিআরসি, পিজিসিএল ও ইন্টারনেট কোম্পানীগুলোর উদাসিনতার কারণে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে বিশিষ্টজনেরা এই অভিমত ব্যক্ত করেন। এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ নেসকো’র নির্বাহী প্রকৌশলী শিহাব হুসাইন বলেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করা সম্ভব নয় বলে তিনি উল্লেক করেন।
 

এবিএন/এস.এম তফিজ উদ্দিন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ