ডিমলায় মিল্কচিলিং প্লান্ট স্থাপনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৩৯

ডিমলা পল্লীশ্রী রি-কল প্রকল্প ২০১০ সাল হতে ডিমলা উপজেলার পূর্ব ছাতনাই, পশ্চিম ছাতনাই, খগাখড়িবাড়ি, টেপা খড়িবাড়ি ও খালিশা চাপানী ইউনিয়নে হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে কাজ করে আসছে। 

জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ঘাতসহনশীল ও স্থায়ীত্বশীল উন্নয়নে গাভী প্রদান এবং দেশী-বিদেশী গাভীর জাত উন্নয়নে কৃত্রিম প্রজনন এর কার্যক্রমে গ্রামীণ মানুষের গাভী পালনের মাধ্যমে দুধ উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে তারই ধারাবাহিকতায় গত (১৬ সেপ্টেম্বর) সোমবার নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা পরিষদ হলরুমে পল্লীশ্রী প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়কারী পুরানচন্দ্র বর্মন এর সঞ্চালনায় পল্লীশ্রী রি-কল ২০২১ প্রকল্পের সহযোগিতায় এবং উপজেলা ডেইরী খামার এসোসিয়েশনের আয়োজনে “মিল্কভিটা কো-অপারেটিভ কর্তৃক ডিমলায় মিল্কচিলিং প্লান্ট স্থাপন উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভা” অনুষ্ঠিত হয়। 

উক্ত সভায় ছোট বড় মিলে মোট ১’শত ২৫ জন খামারী উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তব্য রাখেন নীলফামারী-১ সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আফাতাব উদ্দিন সরকার তিনি বলেন ডিমলা উপজেলার এই ১’শ ২৫ জন খামারী যাদের প্রতিদিন উৎপাদিত দুধের পরিমাণ প্রায় ৫ হাজার লিটার যা বিভিন্ন হোটেল ও ভোক্তার নিকট নাম মাত্র মূল্যে বিক্রয় করতে হয় কিন্তু গাভী পালনে গাভীর খাদ্য ক্রয় করতে ভর্তুকি দিতে হয় তাতে করে এক দিকে যেমন খামারীরা আগ্রহ হারাচ্ছে অন্যদিকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, এজন্য ডিমলা উপজেলায় মিল্কভিটার মাধ্যমে একটি চিলিং সেন্টার স্থাপন করা যায় তাহলে খামারীরা গাভী পালনে আগ্রহ ফিরে আসবে ডিমলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. নাজমুন নাহার বলেন একজন কৃষকের উন্নয়ন করতে হলে তার বাড়িতে শাক-সবজি, গরু-ছাগল এবং হাঁস-মুরগী পালন প্রয়োজন যার মাধ্যমে পরিবারের স্থায়ীত্বশীল উন্নয়ন সম্ভব যা ডিমলা উপজেলাবাসী সম্ভব করে তুলেছে কিন্তু উৎপাদিত দুধের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার কারণে উন্নয়ন ব্যহত হচ্ছে যা অদ্য মিল্ক ভিটা প্রতিনিধির মাধ্যমে চিলিং পয়েন্ট স্থাপনের মাধ্যমে উপজেলাবাসীর উন্নয়ন সম্ভব বিষয়টি মাথায় রেখে মিল্কভিটা প্রতিনিধির উদ্দেশ্যে চিলিং পয়েন্ট স্থাপনের দাবি জানান তিনি মিল্ক ভিটা কোম্পানী প্রতিনিধির উদ্দেশে চিলিং প্লান্ট স্থাপনের জোর দাবি জানান। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব তবিবুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বাবু নিরেন্দ্র নাথ রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়শা সিদ্দীকা, ডিমলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মফিজ উদ্দিন শেখ, ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা, ডিমলা উপজেলা প্রাণিসম্পদ ভেটেনারী সার্জন সাইদুর রহমান, পার্শ্ববর্তী জলঢাকা উপজেলা মিল্কভিটা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ডা. জাহেদুল ইসলাম। 

ডেইরী খামার এসোশিয়াশন উপজেলা সভাপতি নুরুল হক আমিন, শিবু দত্ত, সুমন, হেলাল, বুলু, আনিছুর, মহুবর, সুলতান, নাহিদ হাচান, আফরোজা বেগম, সেলিম প্রমূখ। 

শত ভাগ উৎপাদন মূখী একটি মিল্কচিলিং প্লান্ট আগামী ২/৩ মাসের মধ্যে স্থাপনের আশাবাদ ব্যক্ত করে মতবিনিময় সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন। 
 
এবিএন/বাদশা সেকেন্দার/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ