পঞ্চগড়ে অটোরিকশায় বাসের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ৭

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:৩৬

পঞ্চগড়ে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ৭ যাত্রী নিহত হয়েছেন। ঘটনার পর স্থানীয়রা মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছেন।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কে মাগুরমাড়ি চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের চেকরমারী এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে অটোরিকশাচালক রফিক (৪২), একই উপজেলার রায়পাড়া এলাকার মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে মাকুত হোসেন (৪০), সাহেবজোত এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী নার্গিস বেগম (৩৫), বদিনা জোত ছুড়িভিটা এলাকার মৃত বসির উদ্দিনের ছেলে আকবর আলী (৭০), একই এলাকার মৃত আকবর আলীর স্ত্রী নুরীমা (৪৫), তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের মাঝিপাড়া এলাকার মৃত মজিবর রহমানের ছেলে লাবু হোসেন (৪০) ও তার স্ত্রী মুক্তি বেগম (৩৬)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুরে পঞ্চগড় থেকে যাত্রীবাহী একটি বাস তেঁতুলিয়া যাচ্ছিলো। মাগুরমারি এলাকায় যাত্রীবাহী অটোরিকশাটি সেখানে মোড় নিচ্ছিলো। এ সময় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে বাসের নিচে চলে যায়। এতে অটোরিকশার সাত যাত্রীর মধ্যে পাঁচজন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এছাড়া দুইজনকে গুরুতর আহতাবস্থায় পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নিরঞ্জন সরকার। তিনি জানান, উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন।

এদিকে উদ্ধার কাজে অংশ নেওয়া হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সাংবাদিকদের ওপর হামলা করেছে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ লোকজন। এ সময় হামলায় তেঁতুলিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজিবুল, কনস্টেবল রিপন, সফিউল ও স্থানীয় সাংবাদিক দিদার হোসেন বাদশা আহত হয়েছেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ