কালিহাতীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:০৫

কালিহাতী উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পারখী ইউনিয়নের আউলিয়াবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন একা পেয়ে যৌন হয়রানি করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রী বাড়ি গিয়ে বিষয়টি তার মাকে বলে।

পরে তার মা বিষয়টি এলাকাবাসীকে জানালে মঙ্গলবার স্থানীয় এমপিকে বিষয়টি অবগত করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সহকারী শিক্ষক জানান, প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন এর আগেও অন্য বিদ্যালয়ে থাকাকালে যৌন হয়রানীর অভিযোগ রয়েছে। এলাকাবাসী জানান ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায়না। প্রধান শিক্ষকের বাহামভুক্ত বাহিনী মঙ্গলবার রাতে ওই ছাত্রীর মাকে অভিযোগ না করতে ভয় দেখাচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানান।  ওই ছাত্রীর মা প্রধান শিক্ষকের ভয়ে অভিযোগ করতে সাহস পাচ্ছেনা।

এবিষয়ে ওই ছাত্রীর মা জানান, প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন আমার ৪র্থ শ্রেনী পড়–য়া মেয়েকে জামার বুতাম বুকের মধ্যে লাঠি দিয়ে গুনে গুতা দেয় ও বুকে হাত দেয় বলে ওই ছাত্রী জানান। এবিষয়ে পারখী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আরশেদ ও সাবেক ইউপি সদস্য আঃ করিম মিয়া ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন ইতিপূর্বেও তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ রয়েছে। তার শাস্তির দাবিতে স্থানীয় এমপিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এবিষয়ে ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি সোলায়মান মিয়া বলেন, প্রধান শিক্ষক যদি প্রকৃত পক্ষে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করে থাকেন তাহলে তার শাস্তি হওয়া প্রয়োজন। সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ করেন।

বিষয়টি জানার পর আজ বুধবার উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার আনিছুর রহমান বিদ্যালয়টি পারিদর্শন করেন।

প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন জানান, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। একটি মহল তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠছে। উপজেলা শিক্ষা অফিসার আমিনুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

তবে স্থানীয় এমপি হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী ফোন করে আমাকে অবগত করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।
 

এবিএন/তারেক আহমেদ/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ