মদনে চাচার বিরুদ্ধে ভাতিজার থানায় অভিযোগ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:১৭

নেত্রকোনার মদনে চলতি বোরো মৌসুমে বীজতলা নষ্ট নিয়ে চাচার বিরুদ্ধে ভাতিজা থানায় অভিযোগ দায়ের  করেছেন। উপজেলার বারড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে চাচা ভাতিজার মধ্যে যে কোনো সময় সংঘর্ষের আশষ্কা রয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, বারড়ী গ্রামের ছোবান প্রতি বছরের ন্যয় এবারো শিবপুর মৌজার জমিতে বোরো ধানের বীজ বপন করে। গত ২৮ নভেম্বর চাচা আ. গণি লোকজন নিয়ে তার জমি দাবি করে ভাতিজার বপনকৃত বীজতলা নষ্ট করে দেয়।এতে ভাতিজা বোরো আবাদে অনিশ্চিত হয়ে পড়লে বিভিন্ন স্থানে অভিযোগ দায়ের করেন।   

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য দেবাশীষ জানান, ভাতিজার ছোবানের বীজতলা চাচা গণি মিয়া নষ্ট করে দিলে আমি চেয়ারম্যানের নির্দেশে গতকাল (৬ডিসেম্বর) শুক্রবার এলাকার মাতাব্বর নিয়ে ঘটনাটি মীমাংসা করতে সালিশে বসি। বীজতলা নষ্টকারী চাচা গণি মিয়া কোনো কাগজপত্র না দেখিয়ে জমিটি তার দাবি করে উত্তেজিত হয়ে বৈঠকস্থল ত্যাগ করলে এর মীমাংসা করা সম্ভব হয়নি। আমরা চেয়ে ছিলাম পূর্ব থেকে যেভাবে জমি ভোগ-দখল করে আসছে তা ঠিক রাখতে।

কাইটাইল ইউপি চেয়ারম্যান সাফায়াত উল্লাহ রয়েল জানান, বীজতলা নষ্ট করে দিয়েছে বলে বারড়ী গ্রামের ছোবান তার চাচা গণি মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে আমি সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যকে মাতাব্বর নিয়ে সালিশে বসে ঘটনা মীমাংসা করতে বলেছি।

মদন থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক মোশারফ হোসেন জানান, বীজতলা নষ্ট করার ব্যাপারে বারড়ী গ্রামের ছোবান ৫ ডিসেম্বর আমার কাছে একটি অভিযোগ দেয়। পরে সে জানায় এলাকাবাসী ঘটনাটি মীমাংসা করতে চায়। এর পর সে আর যোগাযোগ করেনি।

অভিযুক্ত গনির ছেলে জসিমের মোবাইল ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করে রিসিভ না করায় গণি মিয়ার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।


এবিএন/তোফাজ্জল হোসেন/জসিম/তোহা

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ