তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ওসি’র ব্যতিক্রমী সমাবেশ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ জানুয়ারি ২০২০, ১৭:১৬

কিশোরগঞ্জের তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে তাড়াইল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.মুজিবুর রহমান, জুয়া, মাদক, ইভটিজিং প্রতিরোধে ব্যতিক্রমী সমাবেশ করেছেন।

জানা গেছে, আজ সোমবার সকাল ১০ টার দিকে তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে সকল ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতে প্রতিদিনের মতো সমাবেশ চলছিল তখন তাড়াইল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.মুজিবুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে হঠাৎ সমাবেশ স্থলে  হাজির হন। সমাবেশে উপস্থিত সকল ছাত্রছাত্রীদেরকে জুয়া, মাদক, ইভটিজিং প্রতিরোধে শপথ বাক্য পাঠ করান।

ওসি মুজিবুর রহমান তাঁর বক্তব্যে বলেন, তোমরা হলে আগামী দিনের ভবিষ্যৎ তোমরাই পারবে সবাই একসাথে মিলেমিশে সমাজ থেকে জুয়া, মাদক, ইভটিজিং নির্মূল করতে। আমি তাড়াইল থানায় ওসি হিসেবে যোগদানের পর থেকে জুয়া, মাদক, ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে যোদ্ধ ঘোষণা করেছি।আমি যতদিন ওসি হিসেবে তাড়াইল থানায় থাকবো ততদিন জুয়া, মাদকের সাথে কোনো আফোস করবো না। আগামী মার্চ মাসে তাড়াইল থানাকে মাদক মুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করবো তাই তোমাদের একান্ত সহযোগিতা আশা করছি।

ওসি মুজিবুর রহমান মাদকের কুফল বিষয়ে বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, তোমরা কেউ যদি অপরাধমূলক কোনো কর্মকান্ড দেখো তাহলে সাথে সাথে তার প্রতিবাদ করবে তোমাদের প্রতিবাদে যদি ওই অপরাধমূলক কর্মকান্ড বন্ধ না হয় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে আমার ফোন নাম্বারে ফোন দেবে ( ০১৭১৩-৩৭৩৪৮২)আমি অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা নেবো।

এছাড়া সমাবেশ চলাকালে বিভিন্ন ক্লাসের ছাত্রদের কাছ থেকে ৫ টি স্মার্ট ফোন জব্দ করেন ওসি মুজিবুর রহমান পরে তিনি নির্দেশ প্রদান করেন যাতে কেউ স্কুল চলাকালীন সময়ে  স্মার্ট ফোন না নিয়ে আসে।বিকেলে অবিভাবকদের মুছলেখায় স্মার্ট ফোন গুলো ফিরিয়ে দেন।ওই সমাবেশে  সকল ছাত্রছাত্রীদেরকে পরামর্শ দেন স্মার্ট ফোন ব্যবহার না করার জন্য।স্মার্ট ফোনেই হলো ইভটিজিংয়ের প্রদান কারন।

তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ব্যতিক্রমী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, তাড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মো.জিল্লুর রহমান, গৌরাঙ্গ চন্দ্র সরকার,মো. রফিকুল ইসলাম, মো.আব্দুল কাদির,   সহকারি শিক্ষক মো. আব্দুল আল মামুন, মো.মিজানুর রহমান মিজান, মো.মাসুম মিয়া, মো.যোবায়ের হোসেন প্রমুখ।


এবিএন/সুমন মিয়া/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ