নরসিংদীতে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:৫৭

নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুরে জেসমিন আক্তার (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দিলেন নরসিংদী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলিমা আক্তার। আজ সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার দগরিয়া গ্রামে এই বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়। স্কুল ছাত্রী জেসমিন আক্তার(১৪) দগরিয়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, চিনিশপুর ইউনিয়নের দগরিয়া গ্রামে স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিবাহ হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলিমা আক্তার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহ আলম মিয়া, জেলা মহিলা অধিদপ্তরের উপপরিচালক সেলিনা বেগম, চিনিশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানমো. নুরুজ্জামান ও সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সৈয়দুজ্জামান ওই ছাত্রীর বাড়িতে যান। পরে পুরো বিষয়টি অবগত হয়ে এই বিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়। এছাড়া ১৮বছর বয়স হওয়ার আগে বিয়ে দিতে পারবেনা এই শর্তে ছাত্রীর বাবা, মার কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলিমা আক্তার বলেন, দগরিয়া এলাকায় বাল্য বিয়ের একটি খবর শুনে সেখানে উপস্থিত হয়ে পরিবারের সদস্যদের বাল্য বিয়ের আইনগত বিষয়টি তুলে ধরি এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশকে সাথে নিয়ে এই বিয়ে বন্ধ করে দেই। এসময় স্কুল শিক্ষার্থী জেসমিন আক্তারের পরিবার অঙ্গিকার করে যে প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত জেসমিন আক্তার কে লেখাপড়া শেখাবেন এবং প্রাপ্ত বয়স হলেই বিয়ে দিবেন।


এবিএন/সুমন রায়/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ