দামে ঝাঁজ তাই হিলির বাজারে উঠছে ‘পাতা পেঁয়াজ’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৫

দাম বেশি হওয়ায় দিনাজপুরের হিলিতে বাজারে উঠতে শুরু করেছে দেশীয় জাতের অপূর্ণাঙ্গ পেঁয়াজ (কলিসহ পেঁয়াজ)। সরবরাহ বাড়ায় স্থানীয়ভাবে এসব পেঁয়াজ পরিচিতি পেয়েছে ‘পাতা পেঁয়াজ’ নামে। ফলে নিত্যপণ্যটির দাম দুই দিনের ব্যবধানে কিছুটা কমেছে। একটু বাড়তি লাভের আশায় আগে থেকেই কৃষকরা ক্ষেত থেকে তুলছেন এসব অপূর্ণাঙ্গ পেঁয়াজ। তবে, বাজারে পাতা পেঁয়াজ ওঠায় কোনো প্রভাব পড়েনি দেশি বা আমদানিকৃত ভারতীয় পেঁয়াজের দামে।

সরেজমিনে বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) হিলির বাজার ঘুরে দেখা গেছে, এসব বাজারে ওঠা দেশীয় জাতের কলিসহ পেঁয়াজ বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। যা গত দুই দিন আগেও ১শ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছিল। এছাড়া আমদানিকৃত ভারতীয় পেঁয়াজ ১০৫ থেকে ১১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পাশাপাশি ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে দেশীয় জাতের পেঁয়াজ। গত কয়েকদিন ধরেই এসব পেঁয়াজ এ দামেই বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজ ক্রেতা মিনহাজুল ইসলাম জানান, ‘যেমন হারে দাম বাড়ছে, তাতে বর্তমানে পেঁয়াজ সাধারণ মানুষদের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। তবে, বাজারে পাতা পেঁয়াজ উঠতে শুরু করায় এর দামে কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে। দামেও যেমন কম, তেমনি রান্নায় পাতা ও পেঁয়াজ দুটোই ব্যবহার করা যাচ্ছে।’

এ দিকে, পেঁয়াজ বিক্রেতা মনির হোসেন এবং আব্দুর রহমান জানান, অনির্দিষ্টকালের জন্য ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করায় গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় এই পণ্যটির আমদানি সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। ফলে দেশে বেশ কিছুদিন ধরেই অস্থিতিশীল রয়েছে পেঁয়াজের বাজার। এমতাবস্থায় কৃষকেরা একটু বাড়তি লাভের আশায় এবং ভালো দাম পাওয়ায় অপূর্ণাঙ্গ অবস্থাতেই ক্ষেত থেকে তুলে এসব পেঁয়াজ বাজারে বিক্রিয় করছেন।

তারা বলেন, হিলি বাজারে গত দুই দিনে এসব পাতা পেঁয়াজ ১শ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। পাশাপাশি এখনো পূর্বের দামেই বিক্রি হচ্ছে আমদানিকৃত ও দেশীয় জাতের পেঁয়াজ।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ