অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ, পাল্টা জিডি তৌসিফ মাহবুবের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৩৬

ছোট পর্দার অভিনেতা তৌসিফ মাহবুবের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ তুলেছেন সামছুন্নার কনা নামে এত তরুণী। মডেল বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে তৌসিফ ভিন্ন ভিন্ন সময় তার কাছ থেকে প্রায় ৫ লাখ টাকা নিয়েছেন বলে থানায় অভিযোগ করেছেন।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে নগরীর হাতিরঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন কনা।

জিডি সূত্রে জানা যায়, ১৮ মাস আগে তৌসিফ মাহবুবের সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয় কনার। পরিচিত হওয়ার পর গত ছয় মাস আগে ০১৬**৯৭৮৯০৯ নাম্বারে বিশ হাজার টাকা নেন তরুণীর কাছ থেকে। এরপর তৌসিফ তৃতীয় পক্ষ শাহরিয়া হোসেনের মাধ্যমে সোনালী ব্যাংক, সাহাপুর শাখা, চাটখিল, নোয়াখালী অ্যাকাউন্ট নং ৩৪১০০৪৪১ হিসাবের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে আরো তিন লাখ বিশ হাজার টাকা নেন। টাকা নেওয়ার পর তৌসিফ তরুণীর সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগ করেননি। তার ব্যবহৃত সবগুলো ফোন নাম্বার বন্ধ করে দেন।

সামছুন্নাহার কনা বলেন- দুই বছর আগে অভিনেতা তৌসিফ মাহবুবের সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয়। এরপর আমাকে মডেল বানানোর কথা বলে বিভিন্ন সময় আমার কাছ থেকে প্রায় ৫ লাখ টাকা নেন।

অন্যদিকে সামছুন্নাহারের এমন অভিযোগের পর রোববার (১৭ জানুয়ারি) রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন তৌসিফ মাহবুব। যার নম্বর ৮৬৮। সাধারণ ডায়েরিতে তৌসিফ উল্লেখ করেন, সামছুন্নাহার কনা (৩৬) নামের গৃহিণী যে অভিযোগ করেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। মান-সম্মান ক্ষুণ্ণ করা, সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমার বিরুদ্ধে ওই জিডি করা হয়েছে।

তৌসিফ মাহবুব বলেন-আমার ফেসবুক আইডি ভেরিফায়েড। কেউ যদি ভুল জায়গায় গিয়ে প্রতারণার শিকার হয়, সেটা কী আমার দায়? কিন্তু আমি যে মানসিক ও সামাজিকভাবে হেনস্তার শিকার হচ্ছি, এই মিথ্যা অভিযোগের দায় কে নেবে?

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ