সড়ক ২: ট্রেলার অপছন্দ জানিয়ে পরিবারতন্ত্রকে ধাক্কা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ আগস্ট ২০২০, ১২:৩২

এজন্যই কথায় আছে জনতা জনার্দন। রাজনীতি হোক বা বিনোদন জগৎ- শেষ কথা কিন্তু মানুষই বলে। সেটা আরও একবার প্রমাণিত হল বুধবার ‘সড়ক ২’ ছবির ট্রেলার লঞ্চের দিন। প্রথমেই যদি পরিসংখ্যানের দিকে চোখ দেওয়া যায়, এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ইউটিউবে ট্রেলারটি দেখেছেন ২৩ লক্ষ ৪২ হাজারের কিছু বেশি সংখ্যক মানুষ। তার মধ্যে ভিডিওটি ঘোষিতভাবে পছন্দ করেছেন ৮৯ হাজার মানুষ। আর অপছন্দ করেছেন প্রায় ১২ লক্ষ মানুষ।  

ট্রেলারটিতে কী এমন রয়েছে, যার জন্য এই বিপুল সংখ্যক মানুষের অপছন্দ হল? দোষটা আসলে ট্রেলারের নয়। এ যেন বলিউডের স্বজনপোষণের বিরুদ্ধে জনতার রায় ঘোষণা হল।

‘সড়ক ২’ ছবিটিতে অভিনয় করেছেন সঞ্জয় দত্ত, আলিয়া ভাট, আদিত্য রায় কাপুর, যিশু সেনগুপ্ত, পূজা ভাট প্রমুখ। ছবি পরিচালনা করেছেন মহেশ ভাট। এঁরা তো প্রত্যেকেই দর্শকদের কমবেশি প্রিয়। প্রত্যেকেরই আলাদা একটা ফ্যানবেস রয়েছে। তার মধ্যে শোনা যাচ্ছে, সঞ্জয় দত্তের মতো জনপ্রিয় অভিনেতার নাকি ক্যান্সার স্টেজ ৩। সেই আবেগও কাজ করল না।  

বিনোদন জগৎ সম্বন্ধে যাঁরা খোঁজ-খবর রাখেন, তাঁদের কাছে বোধ হয় বিষয়টা বেশ এতক্ষণে স্পষ্ট। এই ট্রেলারকে ‘ডিসলাইক’ করে, নেটিজেনরা কিন্তু পরিচালক মহেশ ভাটকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন। কিছুদিন আগেই ভাট পরিবারের বিরুদ্ধে উঠেছিল নেপোটিজমের অভিযোগ। মহেশের ছবিতে তাঁর মেয়ে পূজা বা আলিয়া সুযোগ পাওয়াকে আর দর্শক সাদা চোখে দেখতে নারাজ। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই বলিউডের পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল তরুণ প্রজন্ম। কিন্তু সেটা যে শুধুই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফুটেজ পাওয়ার জন্য নয়, সেই বিষয়টিও এদিন স্পষ্ট হয়ে গেল। তাঁরা বুঝিয়ে দিলেন, যেখানেই পরিবারতন্ত্র থাকবে, সেই ছবিকেই ‘না’ বলার জন্য প্রস্তুত এখনকার প্রজন্ম।  

ট্রেলারের নীচে কমেন্ট বক্সেও একাধিক মানুষ আওয়াজ তুলেছেন। তাঁদের বক্তব্য, এই ট্রেলারকে পৃথিবীর সবচেয়ে অপছন্দের ট্রেলার করতেই হবে। সেই উদ্দেশ্য নিয়েই কিন্তু এই মুহূর্তে এগিয়ে চলেছেন নেটিজেনরা। অন্যদিকে বুধবারই নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে শ্রীদেবী এবং বনি কাপুরের মেয়ে জাহ্নবী কাপুর অভিনীত ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’ ছবিটি। সেই ছবি নিয়েও নেটিজেনদের মধ্যে খুব একটা উৎসাহ নেই। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভোটিংয়ে দেখা গিয়েছে দর্শক ‘সড়ক ২’, ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’-এর থেকে বিদ্যুৎ জামালের ‘খুদা হাফিজ’ ছবি নিয়ে বেশি উৎসাহী জেন ওয়াই।  

বলিউডে একটা নতুন সমীকরণ তৈরি হচ্ছে, এ বিষয়ে আর কোনও সংশয় নেই। মানুষ কিন্তু গ্ল্যামার, পরিবার, পদবীর থেকে মেধা এবং প্রতিভাকেই সমাদর করতে চান। অতীতে কারা, কীভাবে টিকে গিয়েছেন সেই সবই এখন অতীত। নতুন সমীকরণে মানিয়ে নিয়ে কারা টিকে থাকবেন, এখন সেটাই দেখার।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ