সিএমএইচে প্রথমবারের মতো ক্যান্সার রোগীর অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সম্পন্ন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:৫৮

সম্প্রতি প্রথমবারের মতো ঢাকা সেনানীবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) শিশু ক্যান্সার বিভাগের তত্ত্বাবধানে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

১০ বছর বয়সী শিশু সওদা আক্তার গত বছরের ৩১ জানুয়ারি সর্বপ্রথম সিএমএইচ ঢাকার শিশু বিভাগে রিপোর্ট করে এবং পরবর্তী সময় তার ‘নিউরোব্লাস্টোমা স্টেজ-৪’ রোগের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়।

২০১৯ সালের ২৬ নভে¤¦র কর্নেল শরমিন আরা ফেরদৌসি (শিশু ক্যান্সার রোগ বিশেষজ্ঞ) ও তার দলের নেতৃত্বে এবং বোনমেরো ট্রান্সপ্লান্ট সেন্টার সিএমএইচ ঢাকার বিশেষ সহযোগিতায় বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো শিশু ক্যান্সার (নিউরোব্লাস্টোমা স্টেজ-৪) রোগীর অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সম্পন্ন করা হয়।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়।

উল্লেখ্য, নিউরোব্লাস্টোমা শিশুদের একটি ¯œায়ুজনিত ক্যান্সার। সারা বিশ্বে এ রোগে বছরে প্রতি মিলিয়নে ১০ জন শিশু আক্রান্ত হয়। ক্যান্সারজনিত কারণে শিশু মৃত্যুর ১৫ ভাগ হয় নিউরোব্লাস্টোমার কারণে। এই চিকিৎসার প্রতিটি পদক্ষেপ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করলে সুস্থভাবে বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ৫০ ভাগ বেড়ে যায়।

জনসাধারণের দোরগোড়ায় আধুনিক স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকারের অংশ হিসাবে এবং সেনাবাহিনী প্রধানের সার্বিক সহযোগিতায় ঢাকা সিএমএইচ এ ২০১৬ সাল থেকে বোনমেরো ট্রান্সপ্লান্টেশনের কাজ শুরু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বাংলাদেশে প্রথম শিশু ক্যান্সার রোগীর নিজ অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করা হয়। পরবর্তী পর্যায়ে অন্যান্য শিশু ক্যান্সার রোগের অটোলোগাস বোনমেরো ট্রান্সপ্লান্ট এর মাধ্যমে চিকিৎসা দিতে এই প্রতিষ্ঠান আশাবাদী।

অচিরেই এই প্রতিষ্ঠানে শিশু ক্যা›সার রোগ বিশেষজ্ঞদের তত্ত্বাবধানে শিশু থ্যালাসেমিয়া রোগীর সম্পূর্ণ আরোগ্যকারী চিকিৎসা অ্যালোজেনিক বোনমেরো ট্রান্সপ্লান্টেশন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বেসামরিক জনগণও ঢাকা সিএমএইচের বোনমেরো ট্রান্সপ্লান্ট সেন্টারের চিকিৎসা সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ