চাঁদের আলোকিত পৃষ্ঠে বিপুল পরিমাণ পানির সন্ধান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১৩:২৪

চাঁদে ধারণার চেয়েও বেশি পানি রয়েছে। এতদিন চাঁদকে শুষ্ক ও রুক্ষ মনে করা হলেও বিজ্ঞানীদের সেই ধারণা বদলে দিয়েছে নতুন এক গবেষণা।  প্রায় এক দশক আগে চাঁদের অন্ধকার পৃষ্ঠে পানির সন্ধান পাওয়া যায়। এবার পানির খোজ মিলল চাঁদের আলোকিত পৃষ্ঠে।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার স্ট্র্যাটোস্ফেরিক অবজারভেটরি ফর ইনফ্রারেড অ্যাস্ট্রোনমি বা সোফিয়া টেলিস্কোপে চাঁদের আলোকিত অংশে পানির অস্তিত্ব ধরা পড়েছে।

সোমবার নেচার অ্যাস্ট্রোনমি জার্নালে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

নাসার পরিচালক জিম ব্রাইডেনস্টাইন বলছেন, ‘এখনো আমরা জানি না এই সম্পদ আমরা কী করে ব্যবহার করব’, তবে  আণবিক জলের অস্তিত্বের স্পষ্ট এই আবিষ্কার চাঁদে ভবিষ্যৎ অভিযান ও মহাশূন্যে আরও গভীর অভিযান ও অনুসন্ধান চালানো সহজ করবে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

বিজ্ঞানীদের লক্ষ্য এখন চাঁদের প্রাকৃতিক উপকরণগুলোতে পানির আধারটি আটকে রাখা।

আগের গবেষণাগুলোতে বলা হয়েছিল, চাঁদের অন্ধকারাচ্ছন্ন অংশের গর্তগুলোতেই কেবল পানির পানির আছে। সবশেষ আবিষ্কারে বিজ্ঞানীদের দাবি, চাঁদের সূর্যালোক পৃষ্ঠেও আণবিক পানি রয়েছে।

ভার্চুয়াল টেলিকনফারেন্সে চাঁদে বিপুল পরিমাণ পানির একটা অনুমানও দিয়েছেন গবেষণা দলের সদস্য, ম্যারিল্যান্ডের নাসার গডার্ড স্পেস ফ্লাইট সেন্টারের পোস্ট ডক্টরাল ফেলো ক্যাসে হনিব্যাল। তিনি বলছেন, ‘চাঁদের মাটির প্রতি এক ঘন মিটারে গড়পড়তায় পানির পরিমাণ হতে পারে ১২ আউন্সের এক বোতল।’

নাসার মানব অনুসন্ধান অধিদফতরের পরিচালক জ্যাকব ব্লিচার বলেছেন, চন্দ্রপৃষ্ঠে পানির এই আধারের প্রকৃতিটা বিজ্ঞানীদের বুঝতে হবে। ফলে এসব পানি ভবিষ্যতে চাঁদের অনুসন্ধান চালনাকারীদের ব্যবহারের জন্য কতটা সহজ হবে তা জানায় সহজ হবে।

২০২৪ সালে চাঁদে  আবারও মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা রয়েছে নাসার।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ