জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে পাক সেনাদের গুলিতে বিএসএফ কর্মকর্তা নিহত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:৩৮

জম্মু-কাশ্মীরের পুঞ্চে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পাকিস্তানি বাহিনীর গুলিবর্ষণের ফলে পি. গুইটি নামে বিএসএফের এক উপ-পরিদর্শক নিহত হয়েছেন।

গতকাল (মঙ্গলবার) পুঞ্চের মেন্ধরে তারকুন্ডি এলাকায় তিনি নিহত হন। নিহত ওই বিএসএফ কর্মকর্তা মণিপুরের বাসিন্দা ছিলেন। বিএসএফের পক্ষ থেকে ওই ঘটনার পাল্টা ও যথাযথ জবাব দেওয়া হয়েছে।

বিএসএফের মুখপাত্র সূত্রে প্রকাশ, গতকাল (মঙ্গলবার)  বেলা পৌনে ১২ টার দিকে উপ-পরিদর্শক পি গুইটির নেতৃত্বে একটি দল জেলার বালাকোটের তারকুন্ডিতে একটি চৌকি থেকে অন্য চৌকিতে  যাচ্ছিলেন।

এ সময়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী বিএসএফের দলটিকে টার্গেট করেছিল।  বিএসএফের ওই কর্মকর্তা তাঁর সঙ্গীদের বাঁচাতে গিয়ে নিজেই গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই তিনি মারা যান।

পাকিস্তানের পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গুলিবর্ষণের  ফলে গত নভেম্বরে নিরাপত্তা বাহিনীর ৯ জওয়ান ও ৬ বেসামরিক ব্যক্তিসহ মোট ১৫ জন নিহত হয়েছেন।

অন্যদিকে, আজ (বুধবার)  কঠুয়া জেলায় আন্তর্জাতিক সীমান্তে পাকিস্তানি রেঞ্জার্সরা গুলিবর্ষণ করেছে। কর্মকর্তা সূত্রে প্রকাশ, কঠুয়ার হীরানগর সেক্টরে পাকিস্তানি বাহিনী গুলিবর্ষণ করলে বিএসএফের পক্ষ থেকে পাল্টা যথাযথ জবাব দেওয়া হয়েছে। কারোল কৃষ্ণা, পানসার এবং গুরনাম সীমান্ত চৌকি টার্গেট করে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সাড়ে ৯ টায় গুলিবর্ষণ শুরু হলে আজ (বুধবার) ভোর ৪ টা পর্যন্ত উভয়পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

বিএসএফ কর্মকর্তা সূত্রকে উদ্ধৃত করে গণমাধ্যমে প্রকাশ, আন্তর্জাতিক সীমান্ত ও নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পাকিস্তানি বাহিনী চলতি বছরে এ পর্যন্ত ৪ হাজার ১০০ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে। যা গত একদশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ