আজকের শিরোনাম :

ভারতের নতুন টিকা ১২ বছরের ঊর্ধ্বে সবাই নিতে পারবে : মোদি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৫

এবার জাতিসংঘে ৭৬তম আধিবেশনে বক্তৃতা দেওয়ার সময় ভারতের তৈরী ডিএনএ টিকার বিষয়টা সামনে আনলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি দাবি করে বলেন, বিশ্বে প্রথম ডিএনএ টিকা ভারতেই তৈরি হয়েছে। এই টিকার বিশেষত্ব হচ্ছে- ১২ বছরের ঊর্ধ্বে সবাই নিতে পারবে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, জাইডাস ক্যাডিলার তৈরি করেছে এই টিকা। আর এই টিকা বাজারে নিয়ে আসতে ও তৈরি করতে সাহায্য করছে নিয়ামক সংস্থা ডিসিজিএ।

এই টিকার বিশেষত্ব হলো- তা করোনাভাইরাসের জিনগত বস্তুকে ব্যবহার করেই তার প্রতিরোধ করে। ভাইরাসের ওই জিনগত উপাদান এমন কিছু প্রোটিন তৈরি করে যাতে মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সাড়া দেয়।

জাতিসংঘে এই টিকা বিষয়ে নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘‘ডিএনএ টিকার পাশাপাশি ভারত এমআরএনএ টিকা তৈরির কাজেও চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এই টিকা নাক দিয়েও নেয়া যায়। এই টিকা তৈরির জন্য  প্রতিনিয়ত পরিশ্রম করছেন আমাদের দেশের বিজ্ঞানীরা।’’

অবশ্য গত মাসেই ভারতের তৈরি বিশ্বের প্রথম ডিএনএ টিকাকে করোনা ভাইরাসের টিকা হিসেবে অনুমোদন দিয়েছে ডিসিজিএ।

জাতিসংঘে বক্তৃতা করার সময় নরেন্দ্র মোদি আরও বলেন, ‘‘ভারতের ক্ষমতা সীমিত হতে পারে। তবে ভারত ‘সেবাই পরম ধর্ম’— এই নীতিতে বিশ্বাসী। এই নীতিকে আদর্শ মেনেই করোনাভাইরাসের টিকা তৈরির জন্য নিজেদের যাবতীয় ক্ষমতা প্রয়োগ করেছে ভারত।’’

এ সময় বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলোকে ভারতে এসে টিকা তৈরির প্রস্তাবও দেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।

চলমান করোনা সঙ্কটের মাঝে গত এপ্রিল থেকে টিকা রপ্তানি করা বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত সরকার। এবার সেই বিষয়েও জাতিসংঘের মঞ্চ থেকে নতুন ঘোষণা দিলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী। 

তিনি বলেন, ‘মানবসভ্যতার প্রতি ভারত তার কর্তব্য পালন করে চলেছে। তারই অংশ হিসেবে ভারত এবার বিদেশে টিকা রপ্তানি ফের শুরু করবে। যে সব দেশের টিকা প্রয়োজন তাদের টিকা দেবে ভারত।’

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm