পশ্চিমবঙ্গের অর্থনীতি সামলাতে নোবেলজয়ী অভিজিৎ

  ডয়চে ভেলে

০৭ এপ্রিল ২০২০, ১৭:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

করোনা সংক্রমণ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ এবং সারা দেশেই এক অর্থনৈতিক অচলাবস্থা তৈরি করেছে ৷ পরবর্তী সঙ্কট থেকে বাঁচতে এক আন্তর্জাতিক কমিটি গড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি, যাতে থাকবেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ ব্যানার্জি৷

করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে রাজ্যের আর্থিক অবস্থা বিপর্যস্ত হবে, তখন দরকার বিশেষজ্ঞের পরামর্শ৷ তাই একটি আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কমিটি গড়ার কথা সোমবার ঘোষণা করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি৷

সোমবার রাজ্য সচিবালয় নবান্নে এই ঘোষণার সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, লকডাউনের কারণে রাজ্য অচল হয়ে আছে৷ ব্যবসা বাণিজ্য কিছুই হচ্ছে না৷ রাজস্ব আদায় বন্ধ রয়েছে সরকারের৷ আরও কতদিন এই পরিস্থিতি চলবে জানা নেই এবং ভবিষ্যতেও কী হবে, বোঝা যাচ্ছে না৷ ফলে একটি করোনা রেসপন্স টিম গঠন করছে রাজ্য সরকার, অভিজিৎ ব্যানার্জি যে দলে সামিল হবেন৷

ঠিক দুদিন আগেই এক আলোচনায় নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ দম্পতি অভিজিৎ ব্যানার্জি এবং এস্থার দুফলো বলেছিলেন, সাধারণ গরীব মানুষের ভাতের ব্যবস্থা করতে না পারলে এই লকডাউন অর্থহীন হয়ে যাবে৷ কারণ মানুষ তখন রোগ সংক্রমণের পরোয়া না করে ভাতের খোঁজে বেরোবে৷ এর পাশাপাশি তারা দুজনেই বলেন, ভারতে অর্থনীতির মন্দাবস্থা কাটাতে সাধারণ মানুষের হাতে অর্থ আসতে হবে, যাতে তাঁরা খরচ করতে পারেন৷ যাতে বাজারে ভোগ্যপণ্যের চাহিদা তৈরি হয়৷ এই কথাই তারা এর আগেও বলেছিলেন৷ মানুষকে উপার্জনের সুযোগ করে দেওয়ার যে যে পথ তারা বাতলেছিলেন, তার অনেক কিছুই মমতা ব্যানার্জির কর্মসংস্থান পরিকল্পনার সঙ্গে মিলে গিয়েছিল৷

মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, বিদেশ ফেরত যাদের কোয়ারেন্টাইনে যেতে হচ্ছে, তাদের আলাদা থাকার বন্দোবস্ত করতে তিনি রাজ্যের দুই, তিন ও চার তারা হোটেলগুলিকে অনুরোধ করেছিলেন৷ ৩১টি হোটেল রাজি হয়েছে৷ মোট ৬৪০টি ঘর কম ভাড়ায় তারা দিতে প্রস্তুত৷

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ