'বিকাশের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই', শেষকৃত্যে যেতে অস্বীকার গ্যাংস্টারের মায়ের

  হিন্দুস্তান টাইমস

১১ জুলাই ২০২০, ১৩:০৪ | অনলাইন সংস্করণ

ছেলেকে মেরে দেওয়ার দাবি আগেই জানিয়েছিলেন। ভারতের উত্তরপ্রদেশ পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত্যুর পর বিকাশ দুবের শেষকৃত্যে যেতেও অস্বীকার করলেন মা সরলা দেবী। জানালেন, ছেলে ও ছেলের কাজকর্মের সঙ্গে তার কোনও সম্পর্ক নেই।

কৃষ্ণনগরের অ্যাসিসট্যান্ট পুলিশ কমিশনার দীপক কুমার সিং বলেন, 'এনকাউন্টারে বিকাশ দুবের মৃত্যুর কথা পরিবাবরকে জানাতে পুলিশের একটি দলকে পাঠানো হয়েছিল। তিনি কানপুরে যেতে অস্বীকার করেন। বলেন, ছেলে এবং ছেলের কাজের সঙ্গে তাঁর কোনও সম্পর্ক নেই। কৃষ্ণনগর থানার (লখনউ) অধীনে ইন্দ্রলোক কলোনির (বাড়িতে) বৌমা অঞ্জলি এবং তাঁর দুই ছেলের সঙ্গে নিজেকে বন্দি করে নেন বিকাশের মা।'

গ্যাংস্টারের মা জানান, ছোটো থেকেই অপরাধ জগতে হাতেখড়ি হয় বিকাশের। পরিবারের তরফে বারবার সেই জগত ছেড়ে আসার আর্জি জানালে তাতে পাত্তা দেয়নি সে। তার জেরে পরিবারের সঙ্গে তেমন সম্পর্ক ছিল না। ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ ছিল বিকাশের। ছোটো ছেলে দীপপ্রকাশের পরিবারের সঙ্গে থাকতেন সরলাদেবী। লখনউয়ের একই জায়গায় স্ত্রী এবং দুই ছেলের সঙ্গে থাকত বিকাশ।

শেষপর্যন্ত মা এবং বাবার অনুপস্থিতিতেই গত রাতে বিকাশের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। কানপুরের ভাইরোঘাটে শেষকৃত্যে ছিল বিকাশের স্ত্রী রিচা, ছেলে এবং ভগ্নিপতি। সেখানে রিচা আবার জানায়, তাঁর স্বামী 'ভুল' ছিল এবং নিজের কৃতকর্মের জন্য এটাই 'প্রাপ্য' ছিল। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রিচা বলে, 'হ্যাঁ, হ্যাঁ, হ্যাঁ, বিকাশ ভুল করেছিল এবং এটাই ওর প্রাপ্য ছিল।'

বিকাশের শেষকৃত্যের পর ছেলের সঙ্গে রিচাকে সরিয় নেন মহিলা পুলিশকর্মীরা। তারপর গাড়িতে তুলে তাদের অজানা জায়গায় পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে কিনা, সে বিষয়ে পুলিশের তরফে কিছু জানানো হয়নি।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ