নন ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানে কড়াকড়ি চায় দুদক

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০২০, ২১:০২

গ্রাহকের আমানত রক্ষায় নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সরকারের কড়াকড়ি আরোপ চায় দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। হিসাব খোলা, ঋণ দেওয়া এবং বিনিয়োগে সতর্কতা বাড়াতে বাংলাদেশ ব্যাংক, সমবায় অধিদপ্তরসহ কয়েকটি দপ্তরে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি।

বিভিন্ন নন ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণের নামে এক প্রশান্ত কুমার হালদারই হাতিয়ে নিয়েছেন পাঁচ হাজার কোটি টাকা। তার কারণে পিপলস লিজিং, ইন্টারন্যাশনাল লিজিংসহ কয়েকটি নন ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান এখন খাদের কিনারায়। আমানত ফিরে পাচ্ছেন না গ্রাহকরা।

এমন অবস্থায় খোদ সরকারেরই আর্থিক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনফাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড, সংক্ষেপে বিআইএফএফএল তাদের ৫৮৪ কোটি টাকা জমা রেখেছেন দুর্বল পিপলস লিজিং, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, প্রাইম ফাইন্যান্সসহ ১২টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে। এ টাকা আর ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

দুদকের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে, ২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সরকারি বিআইএফএফএল এর টাকা ঝুঁকিপুর্ণ ওইসব আর্থিক প্রতিষ্ঠানে রাখা হয়েছিলো ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে। এ অপরাধে মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরমানুল ইসলাম এবং ট্রেজারি বিভাগের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার নিসারুল কবির সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন দুদকের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম।

দুর্নীতি দমন কমিশনের সিনিয়র সচিব দিলোয়ার বখত বলেন, 'বিআইএফএফএল এর পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন ছাড়াই অতালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠানে টাকা জমা রেখেছেন। এ টাকা ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা নাই।'

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ