নুসরাত হত‌্যায় আ’লীগ নেতা রুহুল আটক

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪১

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত‌্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার সন্দেহে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মাদ্রাসা কমিটির সহ-সভাপতি রুহুল আমিনকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বিকেলে সোনাগাজী থেকে তাকে আটক করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআইয়ের ফেনীর এএসপি মো. মনিরুজ্জামান এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ‌্য, আসামি নুর উদ্দিন ও শাহাদাত হোসেন শামীম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে রুহুল আমিনের সম্পৃক্ততার বিষয়টি ওঠে আসে। তারা বলেন, ঘটনার দিন তারা যখন ঘটনা ঘটিয়ে চলে যাচ্ছিল তখন তারা রুহুল আমিনকে ফোন করে তখন রুহুল আমিন তাদের বলে ‘আমি জানি- তোমরা চলে যাও।

উল্লেখ্য, মূল অভিযুক্ত মাদ্রাসার অধ‌্যক্ষ রুহুল আমিনের খুঁটির জোর এ রুহুল আমিন।

উল্লেখ্য, ৬ এপ্রিল শনিবার সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় যায় নুসরাত জাহান রাফি। মাদরাসার এক ছাত্রী সহপাঠি নিশাতকে ছাদের ওপর কেহ মারধর করেছে এমন সংবাদ দিলে তিনি সেখানে যান। সেখানে দুর্বৃত্তরা তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা ও পৌর কাউন্সিলর মুকছুদ আলমসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন অগ্নিদগ্ধ রাফির বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান।

এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন ৪ জন। ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড দেয়া হয়।

এর আগে ২৭ এপ্রিল ওই ছাত্রীকে নিজ কক্ষে নিয়ে যৌন হয়রানীর অভিযোগে মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাকে আটক করে পুলিশ। সে ঘটনার পর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food