ভালো ঘুম যেসব রোগকে দূরে রাখে

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ আগস্ট ২০২০, ০৯:৪৬

আমাদের শরীরের জন্য ঘুমের প্রয়োজনীয়তার কথা কম-বেশি সবাই জানে। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য কমপক্ষে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম জরুরি। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে তা আমাদের স্বাস্থ্য এমনকি মস্তিস্কেও কুপ্রভাব ফেলে। তাইতো যে কোনো অসুখে বিশ্রাম হিসেবে পর্যাপ্ত ঘুমের কথা বলা হয়।

ঘুম নিয়ে গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রতিদিন সুস্থ স্বাভাবিক এবং আরামদায়ক ঘুম না হলে তা আমাদের মনের উপর যেমন প্রভাব ফেলে, তেমনই এর কুপ্রভাব লক্ষ্য করা যায় আমাদের দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রেও।

সম্প্রতি লুকে কোটিনহো নামের একজন লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, ঘুম আমাদের জীবনে স্বাভাবিক একটি বিষয়। কাজকর্মের অবসরে ঘুম আসা বা ঝিমুনি ধরাও মস্তিস্কের একটি স্বাভাবিক ক্রিয়া। ফলে শরীর এবং মনের প্রশান্তির জন্য সুস্থ সুন্দর ঘুম একজন মানুষের অবশ্যই জরুরি। কলকাতা ২৪ জানিয়েছে একটি ভালো ঘুম অনেক রোগ থেকে আমাদের দূরে রাখে। ভালো ঘুমের অভাবে দেখা দিতে পারে অনেক অসুখ।

লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞ লুকে কোটিনহো জানান যে, প্রতিদিন ঠিকমত ঘুম না হলে আমাদের শরীরে তার কুপ্রভাব পড়তে বাধ্য। আর দীর্ঘদিন এইরকম চলতে থাকলে শরীরে ক্লান্তিভাবের উদয় হয়। মানসিক শান্তি মেলে না। রাতে ঠিকমত না ঘুম হওয়ার কারণে, সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব আসতে থাকে। কাজের প্রতি উৎসাহ হারিয়ে যেতে থাকে।

রাতে আরামদায়ক এবং শান্তিপূর্ণ ঘুম যেকোনো বয়সের মানুষের জন্য ভালো। কারণ, গবেষণা বলছে, রাতে ভালো ঘুম হলে পরদিন সবরকম কাজেই আমাদের শরীর-মন সায় দেয়।

আমাদের দেহে নানা রোগের উৎসের মূলে রয়েছে ঘুম। কারণ, নিয়মিত ৭ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুম না-হলে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে আমাদের শরীরের উপর। দীর্ঘ সময় বা অনেকদিন কোনো মানুষের ভালো ঘুম না হয় তাহলে তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এছাড়াও স্নায়ুর রোগ থেকে শুরু করে অকালে দৃষ্টিশক্তি হ্রাসের মতোও রোগ বাসা বাঁধতে পারে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে কোনো ব্যক্তির অপর্যাপ্ত ঘুম হলে তা তার ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে তোলে। এছাড়াও ঘুম ভালো না হলে হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক সহ অন্যান্য রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে। একটি ভালো ঘুম এসব অসুখ থেকে আপনাকে দূরে রাখে।

ভালো ঘুম না হওয়া যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের উপর কুপ্রভাব ফেলে, তেমনই এর জেরে হার্ট অ্যাটাকের ভয় বাড়ে। সঙ্গে আছে কাজের প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলা, শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া।


এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

ভালো ঘুম যেসব রোগকে দূরে রাখে
আমাদের শরীরের জন্য ঘুমের প্রয়োজনীয়তার কথা কম-বেশি সবাই জানে। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য কমপক্ষে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম জরুরি। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে তা আমাদের স্বাস্থ্য এমনকি মস্তিস্কেও কুপ্রভাব ফেলে। তাইতো যে কোনো অসুখে বিশ্রাম হিসেবে পর্যাপ্ত ঘুমের কথা বলা হয়।

ঘুম নিয়ে গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রতিদিন সুস্থ স্বাভাবিক এবং আরামদায়ক ঘুম না হলে তা আমাদের মনের উপর যেমন প্রভাব ফেলে, তেমনই এর কুপ্রভাব লক্ষ্য করা যায় আমাদের দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রেও।

সম্প্রতি লুকে কোটিনহো নামের একজন লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, ঘুম আমাদের জীবনে স্বাভাবিক একটি বিষয়। কাজকর্মের অবসরে ঘুম আসা বা ঝিমুনি ধরাও মস্তিস্কের একটি স্বাভাবিক ক্রিয়া। ফলে শরীর এবং মনের প্রশান্তির জন্য সুস্থ সুন্দর ঘুম একজন মানুষের অবশ্যই জরুরি। কলকাতা ২৪ জানিয়েছে একটি ভালো ঘুম অনেক রোগ থেকে আমাদের দূরে রাখে। ভালো ঘুমের অভাবে দেখা দিতে পারে অনেক অসুখ।

লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞ লুকে কোটিনহো জানান যে, প্রতিদিন ঠিকমত ঘুম না হলে আমাদের শরীরে তার কুপ্রভাব পড়তে বাধ্য। আর দীর্ঘদিন এইরকম চলতে থাকলে শরীরে ক্লান্তিভাবের উদয় হয়। মানসিক শান্তি মেলে না। রাতে ঠিকমত না ঘুম হওয়ার কারণে, সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব আসতে থাকে। কাজের প্রতি উৎসাহ হারিয়ে যেতে থাকে।

রাতে আরামদায়ক এবং শান্তিপূর্ণ ঘুম যেকোনো বয়সের মানুষের জন্য ভালো। কারণ, গবেষণা বলছে, রাতে ভালো ঘুম হলে পরদিন সবরকম কাজেই আমাদের শরীর-মন সায় দেয়।

আমাদের দেহে নানা রোগের উৎসের মূলে রয়েছে ঘুম। কারণ, নিয়মিত ৭ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুম না-হলে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে আমাদের শরীরের উপর। দীর্ঘ সময় বা অনেকদিন কোনো মানুষের ভালো ঘুম না হয় তাহলে তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এছাড়াও স্নায়ুর রোগ থেকে শুরু করে অকালে দৃষ্টিশক্তি হ্রাসের মতোও রোগ বাসা বাঁধতে পারে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে কোনো ব্যক্তির অপর্যাপ্ত ঘুম হলে তা তার ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে তোলে। এছাড়াও ঘুম ভালো না হলে হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক সহ অন্যান্য রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে। একটি ভালো ঘুম এসব অসুখ থেকে আপনাকে দূরে রাখে।

ভালো ঘুম না হওয়া যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের উপর কুপ্রভাব ফেলে, তেমনই এর জেরে হার্ট অ্যাটাকের ভয় বাড়ে। সঙ্গে আছে কাজের প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলা, শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ