সরব বাম দল, রাস্তায় নামার প্রস্তুতি ইসলামী জোটের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৯:২৯

সমসাময়িক ইস্যুতে চলমান রাজপথের আন্দোলনকে প্রচলিত গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার সংস্কার তথা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার এক দফার আন্দোলনে পরিণত করতে চায় বাম গণতান্ত্রিক জোট। তারা বলছেন, এই ইস্যুতে একমত হয়ে রাজপথে যারা নামবে তাদের সঙ্গে যৌক্তিক ঐক্য হতেই পারে। এদিকে ইসলামিক ঐক্যজোট বলছে, তারা নতুন কৌশলে সামাজিক-রাজনৈতিক অনিয়মগুলোর প্রতিবাদে পথে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধ, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন এবং পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু সহ নানা ঘটনার প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোট রাজপথের বিভিন্ন কর্মসূচীতে সরব হয়েছে।

৫ দলীয় এই জোটের কেউ বলছেন, তারা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার এক দফার আন্দোলনে যেতে চান। গণসংহতি আন্দোলনের সভাপতি জোনায়েদ সাকী বলছেন, আমাদের আন্দোলন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার। এই সরকারের পতন ঘটিয়ে আমরা চাই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে মানুষকে একটি গণতন্ত্র রাষ্ট্র দিতে।

আবার কারো মতে, তারা সেইসব দলগুলোর সাথে ঐক্যে যেতে চান, যারা তাদের ইস্যুগুলোর সাথে একমত। বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কর্স পার্টির মহাসচিব সাইফুল হক মনে করেন, যার যার জায়গা থেকে একটা বড় ধরণের আন্দোলন হওয়া দরকার। আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণ যে দলের আদর্শ মেনে নেবে তার সাথেই থাকবে তারা।

সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স বলছেন, শুধু মুখে বলে কিছুই হবে না। যা হবে রাজ পথে। জনগণের অধিকার রাজ পথেই প্রতিষ্ঠা হবে।

এদিকে, ইসলামিক দলগুলোর সংগঠন হেফাজতে ইসলামের অন্যতম শরীক ইসলামী ঐক্যজোট মনে করে, এখন আর রাজপথের আন্দোলন সম্ভব নয়।

বাম ও ডান- দুই পন্থী জোটের নেতারা অবশ্য এটাও বলছেন, দেশের চলমান গণতান্ত্রিক পদ্ধতি নিয়ে মানুষের মনে হতাশা বিরাজ করছে। তবে রাজনৈতিক কর্মসূচী এ’থেকে পরিত্রাণ দেবে কিনা এ নিয়েও সন্দেহ জনগণের।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ