৬৫০ কোটি টাকার সম্পত্তি! এবার হাজির ম্যারাডোনার ১৯ বছর বয়সী 'অবৈধ' সন্তান

  জি নিউজ

০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:০০ | অনলাইন সংস্করণ

দিয়েগো ম্যারাডোনা চলে গেলেন। কিন্তু তাঁর সঙ্গে সমস্ত বিতর্কও পিছু নেবে বলে যাঁরা ভেবেছিলেন, তাঁদের ধারণা ভুল। গোটা জীবনে ম্যারাডোনাকে জাপ্টে-জড়িয়ে ছিল বিতর্ক। নেশাতুর ম্যারাডোনার বিতর্কিত মন্তব্য থেকে একের এর এক সঙ্গীবদল! কোনও কিছুই বাদ যায়নি। আর্জেন্টাইন তারকা কিন্তু বরাবর বেপরোয়া থেকেছেন। যেটা তাঁর ভাল মনে হয়েছে, তিনি করেছেন। যেটা বলা উচিত বলে মনে হয়েছে, বলেছেন। এমনই সোজাসাপ্টা মানুষ ছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি চলে যাওয়ার পরও সেসব বিতর্কের যেন অবসান হল না। বরং তাঁকে ঘিরে জটিলতা বাড়ল আরও বেশি। 

৬০ বছর বয়সে মারা গেলেন ম্যারাডোনা। রেখে গেছেন ৯০ মিলিয়ন ডলারের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি। ভারতীয় টাকায় প্রায় ৬৬৫ কোটি টাকার সম্পত্তি। গোটা জীবনে কোটি কোটি টাকা উপার্জন করেছেন তিনি। খরচও করেছেন দুহাতে। তবুও বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি তিনি রেখে গেছেন। আর সেই সম্পত্তি নিয়েই এবার যত জটিলতা। আসলে সারা জীবনে বহু সঙ্গীনীর সঙ্গে রাত কাটিয়েছেন তিনি। তাঁদের মধ্যে অনেককে জীবিত অবস্থায় স্বীকৃতি দিয়ে গিয়েছেন। আর্থিক সুরক্ষা দিয়েছেন। তবে অনেককেই আবার তিনি স্বীকৃতি দেননি। 

ম্যারাডোনার অবৈধ সন্তান বলে এবার নিজেকে দাবি করলেন জোস নুনেজ নামে ১৯ বছর বয়সী এক যুবক। তাঁর দাবি, ম্যারাডোনার দেহ যেন কবর থেকে তুলে ডিএনএ টেস্ট করা হয়। তা হলেই সব প্রমাণ হয়ে যাবে।

প্রথম স্ত্রী  স্ত্রী ক্লদিয়া ও দুই কন্যা দালমা ও গিয়ানিয়ার সঙ্গে ম্যারাডোনার প্রায়ই ঝগড়া ঝামেলা লেগে থাকত। রাগ করে ম্যারাডোনা একবার বলেছিলেন, তিনি তাঁর সব সম্পত্তি দান করে যাবেন। কাউকে এক টাকাও দেবেন না। যদিও পরে মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল হয়েছিল। কিন্তু এখন ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর তাঁর সন্তান বলে নিজেকে দাবি করে বসেছেন নুনেজ। তবে তিনি জানিয়েছেন, মারাদোনার ছেলে হিসাবে স্বীকৃতি পাওয়াই তাঁর কাছে আসল। সম্পত্তি নিয়ে তিনি চিন্তিত নন। অনেকেই হিসেব করে বলেন, দুই মেয়ে ছাড়া আরও দুই ছেলে ও তিন কন্যা রয়েছে মারাদোনার। তবে আর্জেন্টিনায় অনেকেই ঠাট্টা করে বলেন, অবৈধ সন্তানদের নিয়ে মারাদোনা ফুটবল দল গড়তে পারতেন। ফলে বুঝতেই পারছেন, ম্যারাডোনার সম্পত্তির ভাগাভাগি এত সহজে হবে না।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ