এই ম্যাচটি টাই ঘোষণা করাই উচিত ছিল: গম্ভীর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯, ০০:১৯

রুদ্ধশ্বাস লড়াই শেষে জয়ের যে তৃপ্তি, তার থেকে নিঃসন্দেহে অনেকখানি হতাশাজনক না হেরেও পরাজিতর তকমা পাওয়া। ঠিক যেটা হল বিশ্বকাপের ফাইনালের মঞ্চে। আর আইসিসির এই নিয়ম কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না ক্রিকেটপ্রেমীরা। ‘বাউন্ডারি কাউন্ট’র বিরুদ্ধে সরব সোশ্যাল মিডিয়া। এমনকী, নিউজিল্যান্ডের এমন ট্র্যাজিক পরিণতির জন্য আইসিসিকে দুষলেন গৌতম গম্ভীরও।

সুপার সানডের রোমাঞ্চকর ম্যাচে লর্ডসে নির্ধারিত ৫০ ওভারে খেলা টাই হয়। এরপর ম্যাচ সুপার ওভারে গড়ালে সেখানও ফলাফল অমীমাংসিত থেকে যায়। অর্থাৎ স্কোর বোর্ডের দিকে তাকালে স্পষ্ট, কোনও দলই পরাস্ত হয়নি। পরস্পরকে হারাতে পারেনি কেউই। অথচ অতিরিক্ত বাউন্ডারি হাঁকানোর সৌজন্যে চ্যাম্পিয়ন ঘোষিত হল ইংল্যান্ডই। বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবার এমন ফলের সাক্ষী রইলেন দর্শকরা। কিউইদের স্বপ্নভঙ্গ করে ৪৪ বছরের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে প্রথমবার বিশ্বজয়ের খেতাব পেল ক্রিকেটের আবিষ্কারকরা।

ম্যাচে ২৪টি বাউন্ডারি মারে ইংলিশ বাহিনী। কিউইদের সংখ্যা ১৬। সুপার ওভারে নিউজিল্যান্ড একটি ছক্কা হাঁকালেও ইংল্যান্ড জোড়া চার মারে। সবমিলিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার নিয়ম মেনে জিতে যান ইয়ন মরগানরা। কিন্তু এরকম নিয়মকে একেবারেই সমর্থন করছেন না ভারতীয় সাবেক ওপেনার।

টুইটারে আইসিসিকে একহাত নেন গম্ভীর। তিনি লিখেন, বিশ্বকাপ ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে কীভাবে বাউন্ডারির সংখ্যা দিয়ে ফলাফল বিচার করা হয়, বুঝতে পারি না। অত্যন্ত হাস্যকর একটা নিয়ম। এই ম্যাচকে টাই ঘোষণা করাই উচিত ছিল। রুদ্ধশ্বাস একটা ম্যাচ উপহার দেওয়ায় আমি নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড, দুই দলকেই অভিনন্দন জানাই।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ