চোখের জলে শিরোপা ছেড়ে দিলেন সেরেনা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ আগস্ট ২০১৯, ০০:১৯

সাম্প্রতিক কালের টেনিস বলতে ছেলেদের রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল, নোভাক জোকোভিচের নাম আসলেও নারী টেনিসে একটাই নাম আসে তা হলো সেরেনা উইলিয়ামস। সেরেনা কোনো ম্যাচে হেরে গেলে সেটা হয় আপসেট। এমন আরেকটি শিরোপা জয়ের দ্বারপ্রান্তে থেকেও ফিরে আসতে হলো সেরেনাকে। ইনজুরি নিয়ে খেলতে নামলেও পুরোটা ম্যাচ খেলতে পারলেন না উইলিয়ামস পরিবারের ছোট মেয়ে সেরেনা উইলিয়ামস। পুরনো পিঠের ব্যথার কারণে ফাইনাল ম্যাচ খেলতে না পারায় চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় প্রতিপক্ষ বিয়াঙ্কা আন্দ্রেসকে।

রোববার রাতে রজার্স কাপের ফাইনালে কানাডিয়ান তরুণী বিয়াঙ্কার বিপক্ষে শুরুটা তেমন ভালো করতে পারেননি সেরেনা। প্রথম সেটের ৪ গেমে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়েছিলেন বিয়াঙ্কাই। তবু তিন সেটের ম্যাচ হওয়ায় সেরেনার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়ার সুযোগ ছিলো না।

কিন্তু হঠাৎ করেই পিঠের ব্যথা বেড়ে যাওয়ায় চার গেম শেষেই ম্যাচ থেকে সরে যেতে বাধ্য হন ২৩ বারের গ্র্যান্ড স্লামজয়ী সেরেনা। ম্যাচটি শেষ করতে না পারায় সাইডলাইনে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। তখন তাকে সান্ত্বনা দিতে এগিয়ে যান প্রতিপক্ষ বিয়াঙ্কা।

শনিবার মারি বুজকোবার বিপক্ষে সেমিফাইনাল ম্যাচের সময়ই পিঠের ব্যথা অনুভব করছিলেন সেরেনা। যা ফাইনাল ম্যাচের কমে যায়। কিন্তু ম্যাচের মাঝে আবার ব্যথা ফিরে আসায় আহত অবসর নিতে বাধ্য হন এ যুক্তরাষ্ট্রের তারকা।

পরে ইনজুরির ব্যাপারে সেরেনা বলেন, ‘আমার পুরো পিঠ জমে আছে। একসময় এমন হয়েছিল যে আমি নড়তেও পারছিলাম না। এভাবে ম্যাচ থেকে সরে যাওয়া সবচেয়ে হতাশার। এর আগেও আমার সঙ্গে এমন হয়েছে। ব্যাপারটা এমন যে ২৪ বা ৩৬ ঘণ্টার একটা ব্যথা ওঠে এবং সব শেষ করে দিয়ে চলে যায়।’

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ