মৌসুমের শুরুতে আগুয়েরোর সঙ্গে গার্দিওলার ঝামেলা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ আগস্ট ২০১৯, ০০:৪৮

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে টটেনহামেমের সঙ্গে ম্যাচে টাচলাইনে সার্জিও আগুয়েরোর সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন কোচ পেপ গার্দিওলা। ম্যানচেস্টার সিটি কোচ ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে ঘটনার নিজস্ব ব্যাখ্যাও দিলেন। পেপের মতে, এ রকম ঘটনা হতে পারে। এটা নিয়ে কোনো চিন্তার কারণ নেই।

ঘটনার সূত্রপাত ৬৬ মিনিটে আগুয়েরোকে তুলে গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে নামানো নিয়ে। ঠিক তার ১০ মিনিট আগে টটেনহামের লুকাস মউরা কর্নার থেকে পাওয়া বল ধরে খেলার ফল ২-২ এ নিয়ে যান। গার্দিওলার দাবি, এই গোলের জন্য আর্জেন্টাইন তারকা তাকেই দায়ী করেছিলেন।

গার্দিওলা জানান কেন আগুয়েরোর সঙ্গে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। ম্যান সিটি কোচের কথায়, ‘আগুয়েরো ভেবেছিল এই গোলের জন্য আমি ওকেই দায়ী করেছি। যে গোলটা আমাদের হজম করতে হয়েছে সেটা আসলে ছিল একটা কর্নার। আমি চেয়েছিলাম কর্নারের সময় যেন ওদের একজনের সঙ্গে আমাদের একজন লেগে থাকে কিন্তু ও ভেবে বসে এই ঘটনায় আমি ওর প্রতি হতাশ। আসলে কিন্তু সেটা নয়।’

গার্দিওলা আরও বলেন, ‘টাচলাইনে থাকার সময় আমি কখনো কখনো যে বেশি উত্তেজিত হয়ে যাই, সেটা একেবারে ঠিক কথা। কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে হতাশ হয়ে আমি সব সময় এ রকম করি। আমি নিজেও ফুটবলটা খেলেছি। ভালো করেই জানি, মাঠে নেমে দারুণ কিছু করা কতটা কঠিন।’

আগুয়েরোকে নিজের অনেক পছন্দের খেলোয়াড় বলে দাবি করেন গার্দিওলা, ‘খেলা চলাকালীন এবং পরে আমাদের মধ্যে কিন্তু অনেক কথাই হয়েছে। সে যাই হোক, আমি কিন্তু ওকে খুবই ভালোবাসি।’

মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে গার্দিওলার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আগুয়েরো কিছু একটা মন্তব্য করেন। যা শুনে রীতিমতো রেগে যান ম্যান সিটি কোচ। ঘুরে দাঁড়িয়ে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারকে লক্ষ্য করে চিৎকার করে কিছু এটা বলতে থাকেন। আগুয়েরোকেও তার জবাব দিতে দেখা যায়। ৪৪ সেকেন্ড ধরে ঝামেলা চলে। আগুয়েরো ডাগআউটে বসতেও রাজি হচ্ছিল না তখন। শেষ পর্যন্ত পরিস্থিতি সামলাতে এগিয়ে আসনে ম্যান সিটির সহকারী কোচ মিকেল আর্টেটা।

তিনি গার্দিওলাকে ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে টাচলাইনের দিকে নিয়ে যান। এর কিছুক্ষণ পরেই ১৮ গজের বক্স থেকে জেসুসের শট বিপক্ষের জালে জড়িয়ে যায়। আনন্দে আত্মহারা পেপ তখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে আগুয়েরোকে জড়িয়ে ধরেন। যদিও ভিডিও প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে রেফারি হ্যান্ডবলের অভিযোগে জেসুসের গোলটি বাতিল করে দেন।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ