‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ মন্তব্যের যে ব্যাখ্যা দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৬:১৬ | আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৬:৫৩

অন্য দেশের তুলনায় ‘দেশের মানুষ বেহেশতে আছে’ বলে একদিন আগে যে বক্তব্য দিয়েছিলেন সমালোচনার মুখে পড়ে তার ব্যাখ্যা দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

সিলেটে জেলা পরিষদের আয়োজনে শনিবার দুপুরে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ওই মন্তব্যের ব্যাখ্যা দেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলেছি, অন্য দেশের তুলনায় আমরা অনেক ভালো আছি এবং তাদের তুলনায় আমরা বেহেশতে আছি, এই কথা বলেছিলাম। কিন্তু আপনারা (সাংবাদিকরা) এক্কেবারে উল্টা!’

আগের দিনের মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘বেহেশতের কথা আমি বলেছি, কম্পারেটিভ টু আদার কান্ট্রি (অন্য দেশের তুলনায়)। আর আপনারা সব জায়গায় লিখেছেন ‘বেহেশত বলেছেন’...মানে টুইস্ট করা হয়েছে। ...বলেন নাই যে আমাদের মূল্যস্ফীতি অন্য দেশের তুলনায় কম...।’

এর আগে শুক্রবার সকালে সিলেটে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষ বেহেশতে আছে। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাবে; একটি পক্ষ থেকে এমন প্যানিক ছড়ানো হচ্ছে। বাস্তবে এর কোনো ভিত্তি নেই।’

মন্ত্রীর ওই বক্তব্যের পর দেশজুড়ে সমালোচনার ঢেউ ওঠে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ নিয়ে বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য জনগণের সঙ্গে তামাশা।

শনিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মুদ্রাস্ফীতি ইংল্যান্ডে ১২ ভাগ, টার্কিতে ৬৭ ভাগ, পাকিস্তানে ৩৭ ভাগ, শ্রীলংকায় ১৫০ ভাগ, আর আমরা ৭ ভাগ। সেই দিক দিয়ে আমরা ভালো আছি।’

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে এ সময় তিনি বলেন, ‘ভারত সরকারের আমন্ত্রণে আগামী মাসের ৪-৫ তারিখ প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে যাবেন। সেই সফরে ভারতের সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়গুলো প্রধান্য পাবে। সেখানে বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনায় আসবে।’

বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ নদীগুলো খননের ব্যাপারে এক প্রশ্নে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ১০-১২ বছর বিরতির পর এ মাসের শেষের দিকে যৌথ নদী কমিশনের (জেআরসি) বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

সেই বৈঠকে ৬টি নদীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সবকটি নৌপথ আগের মতো সচল করার বিষয়টি নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হবে।’

সিলেটের আকস্মিক বন্যার সৃষ্টি হয় উজানের পাহাড়ি ঢলে। তাই ওইসব এলাকার বন্যার পূর্বাভাস যেন ভারত বাংলাদেশকে আগাম জানায় ও ড্যামগুলো উন্মুক্ত করার আগে বিষয়টি নিয়ে তথ্য দেয়, সে প্রস্তাবও ভারতকে দেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ