আলফাডাঙ্গায় গোসল করতে গিয়ে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ মে ২০২১, ২০:০২

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলায় সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার বিকেলে সে প্রতিদিনের ন্যায় উপজেলার আলফাডাঙ্গা সদর ইউনিয়নের জাটিগ্রাম বাড়ির পাশে পুকুরে গোসল করার সময় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শনিবার ছাত্রীর মামা বাদি হয়ে আলফাডাঙ্গা থানায় দুই সন্তানের জনক মো. সুমন মোল্যা (২৫) নামে এক যুবককে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯ (১) ধারায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নম্বর-০১। সুমন মোল্যা আলফাডাঙ্গা উপজেলার সদর ইউনিয়নের জাটিগ্রামের শের আলী মোল্যার ছেলে।

থানা সূত্রে জানা যায়, আলফাডাঙ্গা উপজেলার সদর ইউনিয়নের জাটিগ্রাম মামা বাড়ি থেকে সপ্তম ওই ছাত্রী পড়ালেখা করে। শুক্রবার বিকেলে মামা বাড়ির পাশে প্রতিদিনের ন্যায় সে একটি পুকুরে গোসল করতে যায়। এসময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ওত পেতে থাকা সুমন মোল্যা পুকুরের দক্ষিণ পাশ থেকে কিশোরীকে পিছন থেকে গামছা দিয়ে মুখ চেপে ধরে পাশের একটি ঘাস খেতে নিয়ে যায়। এরপর সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে পৌছে অসুস্থ হয়ে পড়লে মামা-মামীর নিকট বিষয়টি খুলে বলে।

পরিবারের লোকজন তার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ দেখতে পেয়ে দ্রুত আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি দেখতে পেয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বর্তমানে ওই ছাত্রী সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বিষয়টির সত্যতা নির্শ্চিত করে আলফাডাঙ্গা থানার ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান কালের কণ্ঠকে বলেন, ওই ছাত্রী বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় ভিকটিমের মামা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।

এবিএন/কে এম রুবেল/জসিম/জুয়েল

এই বিভাগের আরো সংবাদ