ঝিনাইদহে অপহরণ মামলা তুলে না নেওয়ায় বাদিকে মারধর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৩৯

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার তিওড়দহ গ্রামে অপহরণ মামলা তুলে না নেওয়ায় রজনী খাতুন (৩৫) নামের এক নারীকে পিটিয়ে যখম করেছে মামলার আসামীরা। এ ঘটনায় আবারো পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী ওই নারী।

আহতের স্বজনরা জানায়, গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর তিওড়দহ গ্রামের কামাল হোসেনের নাবালিকা মেয়ে মিনা খাতুনকে অপহরণ করে নিয়ে যায় প্রতিবেশী মিজানুরের ছেলে হৃদয় হোসেন। এ ঘটনায় কামাল হোসেনের স্ত্রী রজনী খাতুন বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর মামলার আসামী মিজানুর রহমানসহ অন্যান্যরা মামলা তুলে নিতে হুমকি-ধামকি শুরু করে। এ ঘটনায় বাদি ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করে। জিডির পর যেন আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে তারা। মামলা তুলে না নেওয়ায় গত ২৮ ডিসেম্বর মিজানুর রহমান, তার ভাই আলিনুর রহমান, শওকত হোসেন পিকুল হোসেন, মকছেদ আলী, ইউনুচ আলী, লিটন হোসেন, মোক্তার হোসেন, আব্দুল ওরফে নব, আজিম হোসেন, চঞ্চলসহ অজ্ঞাত আরও ১০ জন বাদীর বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় তারা বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাটের পাশাপাশি রজনী খাতুনকে বেধঢ়ক মারপিট করে। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আহত রজনী খাতুন বাদী হয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার ও অপহৃত মিনা খাতুনকে উদ্ধারের দাবী জানিয়েছেন তারা।

এ ব্যাপারে হাটগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই রবি শংকর নাগ বলেন, মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পিকুল হোসেন নামের একজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।


এবিএন/নয়ন খন্দকার/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ