রূপগঞ্জে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে লাপাত্তা গৃহবধূ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:০০

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে যুবকের সঙ্গে লাপাত্তা হওয়ার অভিযোগ উঠেছে মোসা: রনি আক্তার নামের এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। গত সোমবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই গৃহবধূর স্বামী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান রনি রূপগঞ্জ থানায় বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দিঘীবরাব এলাকার ফকির কটন মিল সংলগ্ন বাড়ীর ভাড়াটিয়া গোলাম মোস্তফা রাজ্জাকের ছেলে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান রনির সঙ্গে গত ৬ মাস আগে একই এলাকার ভাড়াটিয়া মোঃ নুর ইসলামের মেয়ে মোসাঃ রনি আক্তারের বিয়ে হয়।

বিয়ের কয়েক মাস যেতে না যেতেই স্ত্রী রনি আক্তার তার স্বামী মোঃ মোস্তাফিজুরের কোনো কথাবার্তা না শুনে নিজের খেয়াল খুশিমতো চলাফেরা করাসহ সাংসারিক ছোটখাটো বিষয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া বিবাদ করে। রনি আক্তার বেপরোয়াভাবে চলাফেরা করে এবং দীর্ঘক্ষণ মোবাইল ফোনে কখা বলায় ব্যস্ত থাকতেন সবসময়। এরই মধ্যে স্বামী মোস্তাফিজুর জানতে পারে তার স্ত্রী রনি আক্তারের সঙ্গে একই এলাকার ফকির কটন মিল সংলগ্ন (ইতালি ভিলা) বাড়ীর ভাড়াটিয়া মো. জামালের ছেলে মোঃ তৌহিদ মিয়ার (২৩) পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। এঘটনা জানতে পেরে মোস্তাফিজুর তার স্ত্রীকে বাধা নিষেধ করে সংসার করার কথা বললে, তাকে উল্টো বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তার স্ত্রী।

আরও জানা যায়, গত ২৮ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) সকাল নয়টার দিকে মোস্তাফিজুরের অনুপস্থিতিতে তার স্ত্রী রনি আক্তার ও তৌহিদ মিয়া পরস্পর যোগসাজেশে তার ঘরের মোটরসাইকেল বিক্রির নগদ ২ লাখ ১০ হাজার টাকা ও দুই ভরি ওজনের বিভিন্ন স্বর্ণালংকার (যার মূল্য আনুমানিক ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা) সহ কাপড়চোপড় সঙ্গে নিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়।

এ ব্যাপারে স্বামী মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি যখন জানতে পারি তৌহিদ মিয়ার সাথে আমার স্ত্রীর সম্পর্ক তখন আমি তৌহিদ মিয়াকে অনেকবার বোঝানোর চেষ্টা করি কিন্তু সে আমার কথা শুনেনি বরং আমার মোটরসাইকেল বিক্রির টাকা ও আমার স্বর্ণালঙ্কারসহ আমার স্ত্রী কে নিয়ে সে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত তৌহিদ মিয়ার সাথে বার বার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.এফ.এম সায়েদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নিব।


এবিএন/ইমন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ