আজকের শিরোনাম :

ফরিদপুরে তরুণীর ঝুলন্ত লাশ উদ্বার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:৩৫

চার মাস আগে বিয়ে হয়েছিল তরুণীর। থাকতেন স্বামীর সাথে একটি ভাড়া বাসায়। বাবার বাড়ি থেকে রাতের খাওয়া শেষে বাড়িতে ফিরে আসে তরুণী ও তাঁর স্বামী।

রাত তিনটার দিকে স্বামী মুন্নু শেখ (২০) দেখেন একই ঘরে আড়ার সাথে গলায় ওড়না দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে স্ত্রী শরমিন আক্তারের (১৯) মৃতদেহ ।

এ ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ফরিদপুরের চর কমলাপুর চক এলাকায়। ফরিদপুর কোতয়ালী থানার পুলিশ শুক্রবার সকালে ওই এলাকার বাসিন্দা মো. কামরুজ্জামানের বাড়ি থেকে তরুণীর মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলাদায়ের করা হয়েছে।

মৃত ওই তরুণীর বড় বোন শারমিন আক্তার (২২) বলেন, গত চার মাস আগে মুন্নু শেখের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় শরমিনের। মুন্নু রাজমিস্ত্রির সহযোগী হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি বলেন, তার বোন শরমিন খুব চাপা স্বভাবের। নিজের অনুমভুতি তিনি প্রকাশ করতেন না। শরমিন নিজে সাবলম্বী হওয়ার জন্য বিউটি পার্লারের প্রশিক্ষণ নিয়েছিল।

তিনি বলেন, শরমিনের পাশের বাড়িতে তার মা ও বাবা ভাড়া থাকেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে শরিমন ও তাঁর স্বামী  সে বাড়িতে রাতের খাবার খেয়ে নিজেদের ভাড়া বাড়িতে আসেন। রাত তিনটার দিকে মুন্নু জানায় তার স্ত্রী ঘরের আড়ার সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

সকলে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সনাতন বিশ্বাস।
সনাতন বিশ্বাস বলেন, মৃতের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনি বলেন, মৃতদেহটি উদ্ধার ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের পর পরবর্তি আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এবিএন/কে এম রুবেল/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ