বিয়ে বাড়িতে খাবার কম হওয়ায় সংঘর্ষ, আহত ১০

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ মে ২০২২, ১৩:৫৪

নরসিংদী রায়পুরায় বিয়ে বাড়িতে খাবার সময় কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের পূর্বহরিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসা নিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষই লিখিত অভিযোগ করেনি বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনার পর বিয়ে সম্পন্ন না করেই বর পক্ষ কনের বাড়ি থেকে ফিরে গেছে। পরে নববধূ আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মুছাপুর ইউনিয়নের পূর্বহরিপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে (২০) সঙ্গে পৌর এলাকার হাসিমপুর এলাকার আতাউর রহমানের ছেলে(২৫) এর দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্কের পর দুই পরিবারের সম্মতিতে গতকাল শুক্রবার বিয়ের দিন ধার্য করা হয়। দুপুরের পর বরযাত্রী আসলে শুরু হয় খাওয়া-দাওয়া। একপর্যায়ে বরপক্ষকে খাবার পরিমাণে কম দেওয়ায় বরের বাবা খাবার ভর্তি প্লেট ঢিল মেরে ফেলে দেন। এরপর শুরু হয় দু-পক্ষের তর্কবিতর্ক, তারপর হাতাহাতি থেকে শুরু হয় মারামারি। এ ঘটনায় তন্ময় কুমার শাহা নামের স্থানীয় এক সাংবাদিকসহ দু-পক্ষের ১০ জন আহত হন। পরে পুলিশ রায়পুরা থানা-পুলিশ আসলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলেও বিয়ে সম্পন্ন না করেই ফিরে যান বরযাত্রীরা। অন্যদিকে বিয়ে ভেঙে যাওয়ায় আত্মহত্যার চেষ্টা করে কনে।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রাকিবুল ইসলাম রকিব বলেন, বর পক্ষকে খাবার কম দেওয়ায় বরের বাবা খাবারসহ প্লেট ফেলে দিলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। পরে আমরা চলে আসলে শুনতে পাই বর পক্ষ বিয়ে সম্পন্ন না করেই চলে যায়। এ ঘটনার পর কনে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তবে এ ঘটনায় কোনো পক্ষই অভিযোগ দায়ের করেনি।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ