কাপাসিয়ায় দুই শিশুকন্যাসহ শীতলক্ষ্যা নদে মায়ের ঝাঁপ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ জুন ২০২২, ১৪:৪৮

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় শীতলক্ষ্যা নদে দুই কন্যা শিশুসহ এক মা নদীতে লাফিয়ে পড়েছেন। এ ঘটনায় এক শিশুকন্যাকে স্থানীয় জেলেরা উদ্ধার করতে পারলেও অপর শিশুসহ মা নিখোঁজ রয়েছেন। 

গতকাল রোববার দুপুর আনুমাণিক দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিখোঁজ মা কাপাসিয়ার বিবাদীয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের স্ত্রী আরিফা খাতুন (৪০) ও কন্যা মুর্শিদা (৭)। তাহমিনা (৯) নামে অপর শিশুকে কন্যাকে স্থানীয় জেলেরা জীবিত উদ্ধার করেছেন। 

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সাত সদস্যের ডুবুরীদল শীতলক্ষ্যা নদে নিখোঁজ মা-মেয়েকে উদ্ধারের তৎপরতা চালাচ্ছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরীদলের লিডার মো. ইদ্রিস আলী জানান, আরিফা খাতুন নামে ওই নারী তার বাড়ীর অদূরে সিংহশ্রী ব্রিজ থেকে দুই কন্যাসহ শীতলক্ষ্যা নদে লাফিয়ে পড়ে। এসময় শিশু তাহমিনা স্থানীয় জেলেদের মাছ ধরার জালের খুঁটি ধরে ফেলে। পরে জেলেরা শিশুটিকে তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে। এসময় মা ও অপর শিশু পানির প্রবল ¯্রােতে নিখোঁজ হয়। জেলে এবং স্থানীয়রা নিখোঁজদের উদ্ধারের চেষ্টা করে। বিকেল পৌনে তিনটার দিকে খবর পেয়ে টঙ্গী থেকে সাত সদস্যের ডুবুরীদল বিকেল সাড়ে ৫টায় ঘটানস্থলে পৌঁছে নিখোঁজ মা মেয়ের উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে।

নিখোঁজ নারী প্রতিবেশী মো. মমতাজ উদ্দিন ও আবুল হাশেম জানান, নারায়ণগঞ্জে ওই নারীর বিয়ে হয়েছিল। সেখানে তার স্বামীর মৃত্যুর পর সে দুই শিশুকন্যাসহ বাবার বাড়ি কাপাসিয়ার বিবাদীয়া এলাকায় ফিরে আসে। স্বামীর রেখে যাওয়া সঞ্চিত টাকার লভ্যাংশ দিয়ে ওই নারী সংসার চালাতো। পারিবারিক বিষয় নিয়ে মাঝে মধ্যে বাবার বাড়ির স্বজনদের সাথে নারীর বাগবিতন্ডা হতো। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহ থেকে মানিক বিপর্যস্ত হয়ে সে নদে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারে।

এবিএন/নুরুল আমীন সিকদার/জসিম/গালিব

এই বিভাগের আরো সংবাদ