ডা. মুরাদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অবস্থান স্পষ্ট করার দাবি ফখরুলের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:২৫

বিএনপি মনে করে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই জিয়া পরিবার নিয়ে নিকৃষ্ট অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অবস্থান স্পষ্ট করার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদের পদত্যাগ চান মির্জা ফখরুল।

স্বৈরাচার পতন ও গণতন্ত্র মুক্তি দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে আলোচনা সভার আয়োজন করেন ‘৯০ এর ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের নেতারা। আলোচনায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানানো হয়।

তবে আলোচকরা সরব ছিলেন জিয়া পরিবারকে নিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জিয়ার পরিবার নিয়ে প্রতিমন্ত্রীর শালীনতাবর্জিত বক্তব্যের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নিজের অবস্থান ষ্পষ্ট করার দাবি জানান। বলেন, দুর্ভাগ্য যে প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার মুরাদ হাসান এক সময় ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। প্রতিমন্ত্রী মুরাদের মন্তব্যকে ঈমানহীন ও দুর্ভাগ্যজনক বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে অশ্লীল মন্তব্যের প্রতিবাদে তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের পদত্যাগ দাবী করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুর পাঠানো এক বার্তায় বলা হয়, সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রীর একটি মন্তব্যের প্রতি তীব্র ঘৃণা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি অবিলম্বে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব বহনকারী একজন ব্যক্তির এ ধরনের ঘৃণ্য ও কুরুচিপূর্ণ আচরণের প্রতিকার দাবি করেছেন বলেও বিবৃতিতে বলা হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, জাতীয় পতাকাধারী একজন ব্যক্তির এ ধরনের মনোবৈকল্য উৎসারিত বিকৃতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় সমগ্র জাতিকে স্তম্ভিত করেছে। বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মাদার অব ডেমোক্রেসি উল্লেখ করে বলা হয়, বর্তমান সরকারের প্রতিহিংসামূলক আচরণের শিকার হয়ে তিনি বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ না পেয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আছেন, ঠিক তেমনি সময়ে তার পরিবারের বিভিন্ন জন সম্পর্কে এহেন অশ্লীল ঘৃণ্য অপপ্রচার ইতোমধ্যেই নারী নেতৃত্বসহ দেশের সচেতন সকল মহলের ঘৃণা কুড়িয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অবিলম্বে সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে হীন রাজনৈতিক দুরভিসন্ধিমূলক নারী ও বর্ণবিদ্বেষী বিকৃত মন্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছেন। অন্যথায় যথাসময়ে এর দাঁতভাঙা জবাব দেয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ
ksrm