জুতা মারার নির্দেশদাতা সেই বিপাসকে ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬:৫৭ | আপডেট : ১১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:০০

অব্যাহতি পাওয়া ছাত্রলীগ নেতা আরিফুজ্জামান বিপাস
অসুস্থ বাবার সামনে ছেলেকে নিজের মুখে জুতা মারার নির্দেশ দেওয়ার ঘটনায় ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান বিপাসকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এদিকে, বাবার সামনে ছাত্রলীগ সভাপতির অমানবিক এ ঘটনার দুই মিনিটের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রানা হামিদ এবিনিউজকে বলেন, অসুস্থ বাবার সামনে হাসপাতালে ছেলে এসএম সরকার ওরফে হোসাইনের গালে জুতা মারতে বাধ্য করেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান বিপাস। এমন সংবাদ পাওয়ার পর ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিপাসকে মহেশপুর উপজেলা শাখার সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এসএম সরকার ওরফে হোসাইনের বাড়ি উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের সোনাইডাঙ্গা গ্রামে। তিনি স্থানীয় সাবেক সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজের সমর্থক। বেশ কয়েকদিন ধরে ফেসবুকে লেখালেখির সূত্র ধরে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বিপাসের সঙ্গে হোসাইনের বিরোধ তৈরি হয়। ঢাকায় ছোটখাটো কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন হোসাইন। এক ছেলে এক মেয়ের জনক তিনি।

বাবার অসুস্থতার খবর পেয়ে গত ৭ ডিসেম্বর দিনগত রাত ১২টার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে আসেন হোসাইন। ঘটনার দিন রাতে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান বিপাস আসেন হাসপাতালে। এ সময় কথোপকথনের একপর্যায়ে শাস্তি স্বরূপ বিপাস তার পা থেকে জুতা খুলে দেন হোসাইনকে। এরপর সেই জুতা হোসাইনকে নিজের গালে মারার নির্দেশ দেন। অসহায় হোসাইন অসুস্থ বাবার সামনে নিজের গালে জুতা মারতে থাকেন। এর আগে হোসাইন ছাত্রলীগ সভাপতির পা ধরে কয়েকবার ক্ষমাও চান কিন্তু তাতে আরিফুজ্জামান বিপাসের মন গলেনি।

এ সময় সেখানে হোসাইনের মা ফাতেমাও উপস্থিত ছিলেন। পরে তার বাবার অবস্থার অবনতি হলে ৮ ডিসেম্বর মহেশপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে যশোর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে তিনি মারা যান। রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিজ বাড়ির কবরস্থানে তার বাবাকে দাফন করা হয়।

এর আগে চলতি বছরের ৪ জুলাই ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান বিপাস মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক নাফিস মজিদকে লাঞ্ছনা করেন।

অব্যাহতির বিষয়ে জানতে মহেশপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান বিপাসের মোবাইল নম্বরে কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ