আজকের শিরোনাম :

কয়েক অঞ্চলে ফের তাপপ্রবাহ, লঘুচাপ বাড়াতে পারে বৃষ্টি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০২২, ১২:৪৩

একদিন বিরতি দিয়ে ফের দেশের কয়েকটি অঞ্চলে শুরু হয়েছে তাপপ্রবাহ। তবে সাগরে সৃষ্টি হওয়া সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে বৃষ্টি বাড়ার পূর্বাভাস দিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সর্বশেষ গত ৫ আগস্ট রংপুর, রাজশাহী, পাবনা ও সৈয়দপুর জেলায় মৃদু তাপপ্রবাহ বইছিলো। কিন্তু বৃষ্টি কিছুটা বেড়ে ৬ আগস্ট দূর হয় তাপপ্রবাহ। কিন্তু রোববার (৭ আগস্ট) থেকে ফের রাজশাহী, রংপুর ও নীলফামারী জেলা এবং সিলেট বিভাগে মৃদু তাপপ্রবাহ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

রোববার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ৭৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সিলেটে। এখন উত্তরাঞ্চলে বৃষ্টির প্রবণতা কম।

আবহাওয়াবিদ শাহনাজ সুলতানা জানান, উড়িষ্যা পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের অদূরে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকার অবস্থানরত লঘুচাপটি ঘণীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপ আকারে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘণীভূত হতে পারে।

সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস তুলে ধরে তিনি বলেন, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় ময়মনসিংহ, ঢাকা ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি বর্ষণ হতে পারে।

রাজশাহী, রংপুর ও নীলফামারী জেলাসহ সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে জানিয়ে শাহনাজ সুলতানা বলেন, আগামী তিনদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।

রোববার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো সৈয়দপুরে। সোমবার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো সীতাকুণ্ডে ২৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সমুদ্র বন্দরগুলো, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। তাই চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রাখা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়ার বিভাগ।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

এই বিভাগের আরো সংবাদ